ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড-কে হারিয়ে এফ.এ কাপের ফাইনালে উঠেছে চেলসি। লন্ডনের অন্যতম সেরা ক্লাবের কাছে হার মানতে বাধ্য হয়েছিল ম্যানচেস্টারের সেরা ক্লাব। এই মরশুমে এফ এ কাপ সেমিফাইনালের আগে তিন বার রেড ডেভিলসদের সাথে সাক্ষাতে হারতে হয়েছিল চেলসিকে। তবে সেমিতে প্রথম একাদশে কিছু পরিবর্তন করেছিলেন ম্যানেজার ওলে গানার সলশায়ার। মার্শিয়ালের বদলে ড্যানিয়েল জেমস ও পোগবার বদলে মাঝমাঠে ফ্রেড-কে নামিয়েছিলেন ওলে। সেই পরিবর্তনের খেসারত দিতে হয়েছিল রেড ডেভিলসদের। সলশায়ারের যাবতীয় চিন্তাভাবনা কে টেক্কা দিয়ে মাউন্ট এবং জিরুর গোলে বড় করে জয় তুলে নিয়েছিল ল্যাম্পার্ডের দল। 

আরও পড়ুনঃঅসম-বিহারের বন্যা দুর্গতদের পাশে দাঁড়ালেন কোহলি,রাহুল, সানিয়ারা

উল্টোদিকে এই মরশুমটা একেবারেই ভালো যাচ্ছিল না আর্সেনালের। নতুন ম্যানেজার মিখায়েল আর্তাতে আসার পর কিছুটা আশার আলো দেখলেও ধারাবাহিকতা দেখাতে ব্যর্থ হয়েছিল আর্সেনাল। গোল করার ক্ষেত্রে একা আউবামইয়ংয়ের মুখাপেক্ষী হয়ে বসে থাকতে হচ্ছিল তাদের। ডিফেন্সে একেবারেই ছন্দে ছিল না দাভিদ লুইজ, মুস্তাফি-রা। সেই জায়গা থেকে এফ এ কাপ সেমিফাইনালে ম্যানচেস্টার সিটির বিরুদ্ধে নামার আগে উলভস এবং গত সপ্তাহে লিভারপুলের মতো দলকে হারিয়েছিল তারা। যদিও তা সত্ত্বেও কোন আর্সেনাল ভক্ত হয়তো স্বপ্নেও ভাবতে পারেনি যে কয়েকদিন আগে যে দলের কাছে ৩-০ গোলে হারতে হয়েছিল তাদেরকে ২-০ গোলে হারিয়ে এফ.এ কাপ ফাইনালে উঠবে গানার্স-রা। 

আরও পড়ুনঃক্লাব নয় নাড়ির টান, একশো বছরে ফিরে দেখা লাল-হলুদ মশালের ইতিহাস

আরও পড়ুনঃশতবর্ষে লাল-হলুদ, প্রিয় ক্লাবের জন্মদিনে উৎসবে মাতলেন ইস্টবেঙ্গল ভক্তেরা

লিগে ৩ নম্বরে থেকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে নিজেদের জায়গা নিশ্চিত করেছে চেলসি। আর একবিংশ শতকে প্রথমবার প্রথম ছয়ে থাকতে ব্যর্থ হয়েছে আর্সেনাল। যদি তারা এফ এ কাপ জিততে পারে তবে ইউরোপা লিগে খেলার ছাড়পত্র পেয়ে যাবে। গোটা মরশুমের ব্যর্থতার রেশ কাটিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য তাই এই ম্যাচকে বেছে নিচ্ছেন ল‍্যাকাজেত, আউবামইয়ং-রা। অপরদিকে নিজের প্রথম মরশুমে চেলসি কে ট্রফি এনে দিতে মরিয়া ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ড-ও। আজ লড়াইয়ের ভাগ্য ঠিক করবে মূলত দুই দলের ডিফেন্স। দুই দলের আক্রমণভাগ ভালো হলেও তাদের ডিফেন্স তাদের গোটা মরশুমে বার বার ভুগিয়েছে। তাই আজকের ম্যাচের এক্স ফ্যাক্টর দাভিদ লুইজ, রুডিগার-রাই।