রবিবার ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে আবার এক মহারণ। ঘরের মাঠে চেলসি মুখোমুখি হতে চলেছে লিভারপুলের।  গত বারের রানার্সরা এবারও দাপটের সঙ্গেই লিগ শুরু করেছে। প্রথম পাঁচটি ম্যাচে মাঠে নেমে পাঁচটিতেই জয় পেয়েছে উয়ের্গেন ক্লপের দল। একশো শতাংশ রেকর্ড নিয়ে ব্লুজ বিরুদ্ধে নামতে চলেছে কপরা। মাঠে নামার আগে একটা ভাল খবর, মাঠে ফিরতে পারেন আক্রমণ ভাগের খেলোয়াড় ওরিগি। তবে প্রথম থেকে তার মাঠে নামার সম্ভাবনা কম। অন্যদিকে অনুশীলনে ফিরলেও চেলসির বিরুদ্ধে মাঠে নামা হচ্ছে না দলের এক নম্বর গোলকিপার এলিসন। স্ট্যামফোর্ডব্রিজে নামার আগে সাদিও মানের ফর্ম অনেকটা নিশ্চিন্ত করতে পারে ক্লপকে। গতবারের ইউরোপ সেরারা এবারের চ্যাম্পিয়ন্স, লিগের প্রথম ম্যাচেই হেরেছে। সেই ধাক্কা সামলে মাঠে নামতে হবে ক্লপের দলকে। 

আরও পড়ুন - মেসির থেকে একটা হলেও বেশি ব্যালেন ডি’অর চাই, বলছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো

অন্যদিকে চেলসিও চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রথম ম্যাচে হারের ধাক্কা নিয়ে মাঠে নামতে চলেছে। প্রিমিয়ার লিগেও এবার তাদের পারফরম্যান্স খুব একটা ভাল নয়। ধাবাহিকতা একেবারেই নেই চেলসির দলের। পাঁচ ম্যাচে  মাত্র আট পয়েন্ট তাদের। ল্যাম্পর্ডে ব্লুজদের দায়িত্ব নেওয়ার পর অনেকরেই মনে হয়েছিল গতবারের ধাক্কা এবার সামলে এবার নতুন সাফল্যের পথে হাঁটতে শুরু করবে। কিন্তু বাস্তবে সেটা হয়নি। ল্যাম্পার্ডের কোচিং নিয়ে প্রশ্ন একাধিক। তবে এখনই কেও আশা ছাড়তে নারাজ। প্রাক্তন তারকাকে আরও কিছুটা সময় দেওয়ার পক্ষপাতি সবাই। লিভারপুলের বিরুদ্ধে এনগোলো কন্তেকে নাও পেতে পারে চেলসি। মহম্মাদ শালহাদের বিরুদ্ধে চেলসির ভরসা তরুণ স্ট্রাইকার ট্যামি আব্রাহাম। 

আরও পড়ুন - দ্রাবিড়ের হাত বদল, অপেশাদার আইসিসির ওপর ক্ষুব্ধ ক্রিকেট মহল

সুপার কাপে লিভারপুলের কাছে হারতে হয়েছে হয়েছে চেলসিকে। সেই হারের বদলা নেওয়ার সুযোগ রয়েছে। কিন্তু কাজটা একেবারেই সহজ হবে না। কারণ দল হিসেবে লিভাপুল অনেকটাই এগিয়ে। যতই অ্যাওয়ে ম্যাচ হোক না কেন, রবিবারের ম্যাচে এগিয়ে লিভারপুল। এই ম্যাচটার দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে ম্যানসিটি কোচ গুয়ার্দিওলাকে। কারণ লিভারপুল হারলে একটু হলেও যে অক্সিজেন পাবে তাঁর দল। 

আরও পড়ুন - টি২০ দল থেকে বাদ যাওয়াকে পাত্তা দিচ্ছেন না কুলদীপ, ফোকাস টেস্ট ক্রিকেটে