কলকাতা ফুটবল লিগে ফের এগিয়ে গিয়েও জয় অধরা থেকে গেল ময়দানের শতবর্ষ পূর্তি ক্লাব ইস্টবেঙ্গলের। ভবানীপুরের বিরুদ্ধে ২-২ গোলে ড্র দিয়ে কল্যাণী স্টেডিয়ামে ম্যাচ শেষ করল আলেহান্দ্রার দল। প্রথমার্ধের একেবারে শুরু থেকেই এদিন মুহূর্মুহু আক্রমণে যায় লাল-হলুদ। তবু এদিন জয়ের ধারা ধরে রাখতে ব্যর্থ হল ইস্টবেঙ্গল।

এদিন ভবানীপুরের বিরুদ্ধে ২ মিনিটের মাথায় কর্নার আদায় করে নেন কোলাডোরা। তবে সেই কর্নার থেকে কাজের কাজ করতে পারেননি ইস্টবেঙ্গল স্ট্রাইকাররা। ৫ মিনিটের মাথায় কমলপ্রীতের পাস ক্লিয়ার করে দেন ভবানীপুর ডিফেন্ডার ভিক্টর। তবে সেই রিটার্ন বল নিয়ে ৬ মিনিটে ডি বক্সের কাছ থেকে ইস্টবেঙ্গলের হয়ে প্রথম গোলটি করেন পিন্টু মাহাতো। ১৮ গজ দূর থেকে দুরপাল্লার শটে গোল করে যান পিন্টু। এছাড়া প্রথমার্ধে আর গোলের মুখ দেখেনি ইস্টবেঙ্গল। তবে লাল-হলুদ ফরওয়ার্ডদের পা থেকে বেশ কিছু ভালো আক্রমণে দেখা গিয়েছে।

আরও পড়ুন, মৃত বাবার জন্য় কান্নায় ভেঙে পড়লেন রোনাল্ডো


৩৩মিনিটের মাথায় কোলাডোকে ফাউল করে ম্য়াচের প্রথম হলুদ কার্ডটি দেখেন ভবানীপুরের অ্য়ান্টো। আর সেই সেঙ্গ পাল্টা আক্রমণ বাড়াতে শুরু করে ভবানীপুর দল। সেই আক্রমণে প্রথমার্ধের শেষের দিকটা বেশ কিছুটা চাপে পড়ে যেতে দেখা যায় ইস্টবেঙ্গল ডিফেন্সকে। তবে টেকনিক্য়াল ভাবে ভালো ফুটবল খেলতে শুরু করে মোহনবাগানের প্রাক্তন কোচ শংকরলালের ভবানীপুর। 

জানতে পড়ুন, ইংল্য়ান্ডের সঙ্গে কোচিং পর্ব শেষ হল বেলিসের

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে বেশ কিছু সুযোগ এলেও তাকে কাজে লাগাতে ব্যর্থ হন ইস্টবেঙ্গল ফুটবলাররা। অপরদিকে খেলার গতির বিরুদ্ধে গোল করে ভবানীপুরের হয়ে সমতা ফেরান কামো বায়ো। সমতা ফেরানোর পর বেশ কিছুক্ষণ ম্যাচ নিজেদের কবলে রেখেছিল ভবানীপুর। ময়দানের বড় ক্লাবকে টেকনিক্যাল ফুটবল খেলে আটকে রাখেন শংকরলালের ছেলেরা। ৮০ মিনিট পর্যন্ত খেলার ফল ছিল ১-১।

৮২ মিনিটের ইস্টবেঙ্গলেক এগিয় দেন বোরহা পেরেজ। তবে আরও এ্কবার ব্যাবধান ধরে রাখতে ব্যর্থ হয় ইস্টবেঙ্গল রক্ষণভাগ। ৮৪ মিনিটের মাথায় ভবানীপুরের হয়ে ইস্টবেঙ্গলের জালে বল জড়িয়ে দেন জগ্গনাথ ওঁরাও। ৫ মিনিট অতিরিক্ত সময় খেলা হলেও, শেষ পর্যন্ত ২-২ ফলেই শেষ হয় খেলা। ফলে ৮ ম্যাচ খেলে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলে ৩ নম্বরে রইল ইস্টবেঙ্গল। একই পয়েন্টে রযেছে আরও তিনটি দল। তবে পরের ম্যাচ থেকেই জয়ের সরণিতে ফিরতে না পারলে এবারও লিগ জয়ের স্বপ্ন অধরাই থেকে যাবে ইস্টবেঙ্গলের।

আরও পড়ুন, জমে উঠেছে লিগের লড়াই, ড্র পিয়ারলেসের, জয় পেল মহমেডান, রবিবার টিকে থাকার লড়াই বাগানের

তবে এদিন লাল হলুদের পক্ষে একটি সুখবরও রয়েচে। আইএফএ-র তরফ থেকে শাস্তি কমানো হয়েছে ইস্টবেঙ্গল ফুটবলার-সহ সাপোর্ট স্টাফেদের। কলকাতা লিগের ম্যাচে রেফারির সঙ্গে বচসায় জড়ানোতে এর আগে গোলরক্ষক কোচ অভ্র মণ্ডল ও ম্যানেজার দেবরাজ চৌধুরিকে এক বছরের জন্য নির্বাসত করেছিল আইএফএ। তবে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের পক্ষ থেকে শাস্তির বিরুদ্ধে আবেদন করা হয়। এরপরই নির্বাসনের বদলে তাঁদের ৭৫ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। মেহতাব সিং ও লালরিনডিকা রালতেরও জরিমানার পরিুমাণ ১ লক্ষ টাকা কমিয়ে ৭৫ হাজার টাকা করা হয়েছে।