আইলিগে জোড়া ম্যাচে থেকে মোহানবাগানের হাতে এসেছে মাত্র একটি পয়েন্ট। রবিবার ঘরের মাঠে চার্চিল ব্রাদার্সের বিরুদ্ধে লজ্জার হারের মুখ দেখতে হয়েছে সবুজ মেরুনকে। এদিকে কলকাতার আরেক প্রধান ইস্টবেঙ্গলের অবস্থাও খুব একটা ভালও নয়। প্রথম দুটি ম্যাচ ড্র করে তাদের হাতে আছে মাত্র ২ পয়েন্ট। এই অবস্থায় মঙ্গলবার লিগের তৃতীয় ম্যাচে মাঠে নামছে লাল হলুদ ব্রিগেড। প্রতিপক্ষ নেরোকা এফসি। পাহাড়ে খেলা শুরু হবে দুপুর দুটো থেকে। মাঠে নামার আগে ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের ভাবাচ্ছে দলের ক্লান্তি। কারণ শনিবার পাঞ্জাবের বিরুদ্ধে ম্যাচ খেলে আবার মঙ্গলবার মাঠে নামতে হচ্ছে আলেহান্দ্রোর দলকে। এক সপ্তাহের মধ্যে তিনটি ম্যাচ ইস্টবেঙ্গলরে। 

আরও পড়ুন - সাউথ এশিয়ান গেমসে সোনা জয়ের হ্যাটট্রিক ভারতীয় মহিলা ফুটবল দলের

গত বুধবার ঘরের মাঠে রিয়াল কাশ্মীরের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচ খেলেছে ইস্টবেঙ্গল। তারপর শনিবার লুধিয়ানা গিয়ে মিনার্ভার বিরুদ্ধে খেলা। তেব সেই ম্যাচের আগে লাল হলুদের ইনভেস্টর কর্তাদের চুড়ান্ত অপেশাদারিত্বের মুখে পরতে হয়েছে কোলাডোদের। শনিবার ভোর রাতে প্রায় সাত ঘন্টার বাস যাত্রা করে লুধিয়ানা পৌঁছাতে হয়েছিল দলকে। শনিবার খেলার পর রবিবার দিল্লি - গুয়াহাটি হয়ে নেরোকতার বিরুদ্ধে ম্যাচ খেলতে পৌঁছেছেন ইস্টবেঙ্গল ফুটবলাররা। ক্লাব কর্তারা বেজায় চটেছেন কোয়েস কর্তাদের অপেশাদার মনোভাবের জন্য। ক্লাবের পক্ষ থেকে চিঠিও দেওয়া হয়েছে কোয়েসকে। এরপর মঙ্গলবার ফল ভালও না হলে চাপ আরও বাড়বে। অন্যদিকে আত্মবিশ্বাসী নেরোকা শিবির। প্রথম ম্যাচে চার্চিলের বিরুদ্ধে হারের পর পাহাড়ে আইজলের বিরুদ্ধে নর্থ ইস্ট ডার্বি জিতেছে তারা। 

 

 

 

আরও পড়ুন - ক্রীড়া বিশ্বে বড় খবর, ডোপিং কাণ্ডে চার বছরের জন্য নির্বাসিত রাশিয়া

এদিকে খারাপ আবহাওয়ার জন্য বাতিল হয়ে গেল রিয়াল কাশ্মীরের জোড়া ম্যাচ। কাশ্মীরে প্রবল তুষারপাতের জন্য বন্ধ হয়ে গেছে শ্রীনগর বিমান বন্দর। তাই প্রতিপক্ষ দলের পক্ষে সেখানে পৌছে খেলা সম্ভব নয়। ১২ তারিখ ঘরের মাঠে গোকুলামের বিরুদ্ধে ও ১৫ তারিখ গোয়ার চার্চিল বার্দাসের বিরুদ্ধে খেলা ছিল স্নো লেপার্ডদের। কিন্তু সেই খেলা আপাতত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এখনও পর্যন্ত মাত্র একটি ম্যাচ খেলেছে রিয়াল কাশ্মীর। কল্যাণীতে ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে ১-১ গোলে ড্রে করেছে তারা। 

আরও পড়ুন - শ্রীলঙ্কার হাত ধরে দশ বছর পর টেস্ট ক্রিকেট ফিরছে পাকিস্তানে