ম্বাইয়ের কোলাবা অঞ্চলের ফুটপাথে ১৯৬০ সালে একটি খবরের কাগজের স্টল খুলেছিলেন প্রাক্তন মোহনবাগান ফুটবলার উদয় কোনারের বাবা। সেই স্টল থেকে যা আয় হত সেই দিয়েই চলত উদয়দের পরিবার। তাঁর ফুটবলার হয়ে ওঠাও ওই কাগজের স্টলের দৌলতেই। সেখান থেকেই মোহনবাগান, মাহিন্দ্রা ইউনাইটেড, এয়ার ইন্ডিয়ার মতে দলে খেলের হয়ে খেলা। ফুটবল ছাড়ার পর এই কাগজের স্টলটাকেই নিজের জীবিকা হিসেবে গ্রহণ করেছিলেন উদয় কোনার। সবই চলছিল ঠিকঠাক। কিন্তু গত দুমাস ধরে সমস্যায় পরেছেন মহারাষ্ট্রের হয়ে সন্তোষ ট্রফি জেতা উদয়। কোলাবার ওই এলাকার জমি এবার বিল্ডারদের নজরে। ক্রমাগত তারা উদয় ও অন্য দোকানদারদের ওপর চাপ তৈরি করছে এলকা খালি করার জন্য। 

আরও পড়ুন - মেসির পর ড্র রোনাল্ডোর জুভেন্তাসের, ৩ গোলে জয় পিএসজি ম্যানসিটি ও বায়ার্নের

ফুটবল মাঠে লড়াই করেছেন, তাই জীবনেরও লড়াই থেকে সরে আসতে চান না উদয়, বিল্ডারদের বিরুদ্ধে অসম লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন একসময় কলকাতা ময়দানে খেলা ফুটবলারটি। উদয় বলছেন, ‘গত দুমাস ধরে হুমকি দেওয়া হচ্ছে। সেটা নিয়ে থানায় অভিযোগ জানিয়েছিলাম। কিন্তু আমার স্ত্রী’র সঙ্গেও অশালীন আচরনের পরও কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হল না। আমি জানি না এখন কার কাছে যাব? আমার দুটো মেয়ে আছে। এই খবরের কাগজের স্টলই আমার রুজিরুটি।’

আরও পড়ুন - মেসির থেকে একটা হলেও বেশি ব্যালেন ডি’অর চাই, বলছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো

উদয় কোনারের খবর সামনে আসতেই বাংলার ফুটবল মহলে চর্চা শুরু হয়েছে।  কিন্তু হাত পা বাঁধা কলকাতা ময়দানের ফুটবল প্রেমীদের। কারণ গোটা বিষয়টাই হয়ে চলেছে মুম্বাইতে। কিন্তু সবার প্রশ্ন একটাই, রাজ্যকে সন্তোষ ট্রফি জেতানো ফুটবলার যদি প্রশাসনের থেকে বিচার না পান তাহলে সাধারাণ মানুষ কোথায় যাবে। তবে উদয় কোনার লড়াই ছাড়ার পাত্র নন। নিজের স্টলের ছোট্ট জায়গা আঁকড়ে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। 

আরও পড়ুন - কাশ্মীরে ভারতীয় সেনার সাফল্য, একদিনে খুঁজে পাওয়া গেল বাক্সেটবল খেলোয়াড়কে