কাল রাতে লিগে নিজেদের শেষ ম্যাচে রোমার বিরুদ্ধে হেরেছে জুভেন্তাস। কিন্তু সেই ম্যাচের জন্য মাঠে নামানো হয়নি ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোকে। এক সপ্তাহ পরেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রবল গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে লিওনের বিরুদ্ধে নামবে জুভেন্তাস। কাল কোপা দে লা লিগের ম্যাচে ১২০ মিনিট পিএসজির মত দলকে গোল করা থেকে বিরত রেখেছিল লিওন। তো তাদের বিরুদ্ধে নামার আগে রোনাল্ডোর মতো তারকাকে সম্পূর্ণ তরতাজা অবস্থায় চান কোচ মৌরিসিও সারি। তা
আরও পড়ুনঃআইপিএলের ঢাকে কাঠি,জেনে নিন টুর্নামেন্ট নিয়ে ১০টি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত

রোনাল্ডো কাল রাতে খেলতে না নামায় ইউরোপিয়ান এবং সিঁরি আ গোল্ডেন বুট নিশ্চিত হয়ে গেল ইমোবাইলের। চলতি মরশুমে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা ইমোবাইল লিগে মোট ৩৫ টি গোল করেছেন কালকের ম্যাচের আগে অবধি। কাল রাতে আরও এক গোল করে এক মরশুমে সিঁরি আ-তে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড ছুঁয়ে ফেললেন তিনি। এই বছর গোল্ডেন বুটের দৌড়ে তার প্রধান প্রতিপক্ষ ছিল বায়ার্নের রবার্ট লেয়নডস্কি এবং ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। লেয়নডস্কি ৩১ ম্যাচ খেলে শেষ করলেন ৩৪ গোলে আর রোনাল্ডো শেষ করেছেন ৩৩ ম্যাচ খেলে ৩১ গোলে। 

আরও পড়ুনঃ৫৩ দিনের আইপিএলে পরিবার নিয়ে আরব দেশে যেতে পারবেন প্লেয়াররা

আরও পড়ুনঃআইপিএলে থাকছে চাইনিজ স্পনসর, সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রেন্ডিং বয়কট আইপিএল, সরব রাজনৈতিক মহলও

অনেক রোনাল্ডো ভক্ত এই জন্য দায়ী করছেন বুনুচ্চি কে। ফুটবল ফেরার পর থেকে একেবারেই ভালো ফর্মে ছিলেন না ইমোবাইল। এরই মধ্যে জুভেন্তাসের বিরুদ্ধে ম্যাচে লিওনার্দো বুনুচ্চির  বোকার মতো করা ট্যাকেলে পেনাল্টি পায় ইমোবাইল। সেই পেনাল্টি থেকে গোল করে দীর্ঘদিন পরে গোলে ফেরেন ইমোবাইল। তারপর বাকি ম্যাচের প্রত্যেকটিতে গোল করে রোনাল্ডোকে পেছনে ফিরে বেরিয়ে যান তিনি। তাকে সবসময় গোল করার মতো বল জুগিয়ে গেছেন লুইস আলবার্তো। মাঝমাঠ থেকে একের পর এক গোলের ঠিকানা লেখা বল তিনি জুগিয়ে গেছেন ইমোবাইল কে। এই মরশুমে সিঁরি আ-র সর্বোচ্চ এসিস্ট করার দৌড়েও ছিলেন তিনি। রোনাল্ডো জুভেতে পাননি এমন কাউকে। ফলে তার এই বয়সে এসে ৩১ গোলও একেবারে ফেলনা নয়।