মহিলা এএফসি এশিয়ান কাপ আয়োজনের দায়িত্ব পেল ভারত। ভারতের সাথে সাথে এই টুর্নামেন্ট আয়োজনের জন্য আরও দুটি দেশ আবেদন জানিয়েছিল। তারা হলো চাইনিজ তাইপে এবং উজবেকিস্তান। কিন্তু শেষ পর্যন্ত প্রতিযোগিতাটি আয়োজনের সুযোগ পায় ভারত, যা ভারতীয় ফুটবল ভক্তদের কাছে খুবই ভালো খবর তা বলাই বাহুল্য। এই নিয়ে দ্বিতীয়বার এই প্রতিযোগিতার আয়োজনের দায়িত্ব পেয়েছে ভারত। এর আগে ১৯৮০ সালে এই প্রতিযোগিতা আয়োজিত হয়েছিল ভারত। 

আরও পড়ুনঃ'আমরা অসভ্যের দল',কেরালায় হাতি হত্যার ঘটনায় প্রতিক্রিয়া রোহিত শর্মার

এর আগে ভারত দু-বার এই প্রতিযোগিতায় রানার্স আপ হয়েছিল ১৯৮০ এবং ১৯৮৩ সালে। এছাড়া আর একবার ১৯৮১ সালে তৃতীয় স্থান অধিকারী দেশ হয়েছিল। ২০০৩ সালে শেষবার ভারত এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছিল। এএফসি ওম্যানস ফুটবল কমিটির চেয়ারম্যান মাফুজা আখতার জানিয়েছেন শেষবার প্রতিযোগিতাটি আয়োজনের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল পশ্চিম এশিয়ার দেশ জর্ডনকে। এইবার তারা মনে করেছেন যে ভারত সাফল্যের সাথে প্রতিযোগিতাটি আয়োজন করতে পারবে, তাই অনেকগুলি দেশের মধ্যে থেকে ভারতকে সুযোগ দেওয়া হয়েছে। 

আরও পড়ুনঃবর্ণবিদ্বেষী মন্তব্য করে পুলিশি ঝামেলায় যুবরাজ সিং, গ্রেফতারের দাবি রোহিত শর্মাকেও

আরও পড়ুনঃএক সময় রোজ আত্মহত্যার কথা ভাবতেন রবিন উথাপ্পা,কারণ জানালেন নিজেই

সেই কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রতিযোগিতাটি হবে ৮ থেকে ১২ টি দেশের মধ্যে। তিনটি করে দেশকে চারটি গ্রূপে ভাগ করা হবে দলগুলোকে এবং তার মধ্যে থেকে ৮ টি দল কোয়ার্টার ফাইনালে যাবে এবং প্রতিযোগিতাটি নূন্যতম ২৫ টি হবে। গোটা টুর্নামেন্টটি আয়োজিত হবে ১৭ দিনে। এর আগে ভারত সাফল্যের সাথে আয়োজন করেছিল ফিফা অনুর্ধ ১৭ বিশ্বকাপ। সেই সাফল্য এই টুর্নামেন্টেও প্রতিফলিত হয় কিনা তার দিকে নজর থাকবে।