ইতালিতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বাড়তেই ইতালি ছেড়েছিলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। বাড়ি ফিরে পরিবারের সঙ্গেই কাটিয়েছেন লকডাউন পর্ব। করোনা  মোকাবিলায় সাহায্যের হাতও বাড়িয়েছেন সিআরসেভেন। ইতালির পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হতেই দলের বিদেশি প্লেয়ারদের ফেরার কথা বলে জুভেন্টাস কর্তৃপক্ষ। প্রাইভেট বিমানে ইতালি পৌছে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে চলে যাব ক্রিশ্চিয়ানো। কোয়ারেন্টাইন কাটিয়ে অনুসালনে যোগ দেন রোনাল্ডো। প্রথমে স্বাস্থ্য পরীক্ষা হয় রোনাল্ডোর। তারপর হয় হয় কোভিড ১৯ টেস্ট। সব কিছু পাশ করার পরই অনুশলনে নামেন রোনাল্ডো। কিন্তু অনুশীলনে সবাইকে চমকে দিলেন ৫ বারের ব্যালন ডিঅর বিজেতা।

আরও পড়ুনঃএকটানা বাড়ি বসে হতাশ অশ্বিন, ফিরতে চান ক্রিকেটে

তিন মাস খেলার বাইরে থাকার ফলে ফিটনেসের অবভাব কম বেশি দেখা দিয়েছে জুভেন্টাসের অন্য়ান্য প্লেয়ারদের মধ্যে। কিন্তু রোনাল্ডোর ফিটনেস পরীক্ষা নিয়ে চক্ষু চড়ক গাছ ক্লাবের চিকিৎসকদের। দেখা যায় লকডাউনের আগে রোনাল্ডো যা ফিট ছিলেন,তা চেয়েও এখন বেশি ফিট তিনি। রোনাল্ডোর সর্বোচ্চ গতি বেড়েছে। এমনকি শরীরে ফ্যাটের পরিমাণ একটুও বাড়েনি। তিন মাসেরও বেশি সময় ধরে না খেলার পরেও এই ফিটনেস ধরে রাখা কার্যত মিরাকেলের সমান। লকডাউনের সময়ে পর্তুগালে থাকাকালীন প্রতিদিন প্রায় চার ঘণ্টা শারীরিক কসরত করতেন রোনাল্ডো। তারই প্রতিফলন পড়েছে লকডাউনের পর তাঁর মেডিকেল রিপোর্টে। 

 

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

Practice to perfection 🎯⚽️ with @carlopinsoglio 👊🏻 Feeling stronger💪🏻

A post shared by Cristiano Ronaldo (@cristiano) on May 30, 2020 at 9:35am PDT

 

আরও পড়ুনঃআগামী মরসুমে আইলিগে আসতে চলেছে নতুন দল,প্রক্রিয়া শুরু করল ফেডারেশন

আরও পড়ুনঃভূঁড়ি নিয়ে বেসামাল মারাদোনা,অবশেষে সামনে এল ভিডিওর সত্যতা

নিজের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট থেকে দুটি ভিডিও শেয়ার করেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। যেখানে দেখা যায় ড্রিবলিং, শট সবই আগের মতই রয়েছে রোনাল্ডোর। বুলেটের মত শট অনুশীলনও ধরতে বেগ পেতে হয় গোলকিপারের। বেশিরভাগ সময়ই রোনাল্ডোর শট জালে জড়িয়েছে। তারপর ফিটনেস ট্রেনিংয়ের ভিডিওতেও দেখা য়ায় রোনাল্ডোর সেই বিদ্যুৎগতির দৌড়। সব মিলিয়ে রোনাল্ডোকে দেখে খুশি ক্লাব কর্তৃপক্ষ থেকে বিশ্ব জুড়ে কোটি কোটি তার ভক্তরা। এখন শুধু অপেক্ষা বল পায়ে মাঠে নামার।

 

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

Explode mode 💥💨

A post shared by Cristiano Ronaldo (@cristiano) on May 23, 2020 at 5:33am PDT