আবার ডোপ টেস্টে ফেল করলেন এক ভারতীয় তারকা ক্রীড়াবিদ। এবার ডোপের ধাক্কা নেমে এল ভারতীয় বাস্কেটবলের  তারকা সতনাম সিংয়ের ওপর। ২৩ বছরের সাতনামকে অন্তবর্তীকালীন নির্বাসনে পাঠিয়েছে ন্যাশনাল অ্যান্টি ডোপিং এজেন্সি। ১৯ নভেম্বর থেকে নির্বাসনে পাঠানো হয়েছে সতনামকে। সাউথ এশিয়ান গেমসের প্রস্তুতির সময় বেঙ্গালুরুতে ডোপ পরীক্ষা হয়েছিল সাতনামের। তার রিপোর্ট আসার পরই ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে সতনামকে সাউথ এশিয়ান গেমসের দল থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন - দশ বছর পর টেস্ট দলে ডাক, পাক ক্রিকেটে নতুন নজির

সাত ফুট দুই ইঞ্চি উচ্চতার এই বাস্কেটবল খেলোয়াড় ২০১৫ সালের এনবিএ ড্রাফ্টে সুযোগ পেয়েছিলেন সতনাম। তারপর থেকেই তাঁকে নিয়ে ভারতে একটা অন্য উন্মাদনা তৈরি হয়েছিল। এখন কানাডার একটি বাস্কেট বদ দলের হয়ে খেলেন সতনাম। নাডা জানিয়েছে সতনামের স্যাম্পেল এ টেস্টে নেগেটিভ রিপোর্ট রয়েছে। কিন্তু মূত্রের নমুনায় কোন ধরনের নিশিদ্ধ স্টেরয়েড পাওয়া গেছে সেটা এখনও জানা যায়নি। সুত্রের খবর স্যাম্পেল বি টেস্টের জন্য আবেদন করতে চলেছেন সতনাম। সেই টেস্টেও তিনি যদি ব্যর্থ হন তাহলে নাডার তদন্তের মুখে পরতে হবে সতনামকে। এটা সতনামের প্রথম ভুল তাই সর্বোচ্চ চার বছর নির্বাসনের মুখে পরতে পারেন তিনি। 

আরও পড়ুন - রবিবারই সিরিজের ফয়সালা চায় টিম ইন্ডিয়া, মান বাঁচানোর লড়াই পোলার্ডদের

এই নিয়ে মুখ খুলতে চায় না ভারতীয় বাস্কেটবল ফেডারেশন। সংস্থার প্রধান চান্দের মুখি শর্মাকে এই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান শহরের বাইরে থাকায় তিনি এই বিষয়ে কিছু জানেন না। ১৫ ডিসেম্বর আবার অফিসে ফিরবেন তিনি। তখন দেখবেন গোটা বিষয়টি। তিনি আরও বলেন সতনাম নিজেই বাস্কেট বল ফেডারেশনের কাছে চিঠি পাঠিয়ে সাউন এশিয়ান গেমস থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিল।  কিছু ব্যক্তিগত কারণের উল্লেখ ছিল চিঠিতে। ২০১৫ সালে এনবিএ ড্রাফটে অংশ নিয়েছিলেন সাতনাম। সুযোগও পেয়েছিলেন এনবিএ খেলার। তারপর দেশে ফিরে এসেছিলেন সতনাম। কিন্তু আবার স্কটল্যান্ডের দলে ডাক পান। পেশাদার বাস্কেটবল খেলের পাশাপাশি জাতীয় দলের হয়েও এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ ও কমনওয়েলথ গেমসেও অংশ নিয়েছেন তিনি। 

আরও পড়ুন - ঘাতক উইকেটে আহত একাধিক ব্যাটসম্যান, খেলা বন্ধ মেলবোর্নে