মাঝে মাত্র পাঁচ বছরের ব্যবধান। ফের আই লিগ জয় মোহনবাগানের। মঙ্গলবার কল্যাণিতে আইজল বধ করতেই  ৪  ম্যাচ বাকি থাকতেই আই লিগ জয় নিশ্চিত করল কিভু ভিকুনার ছেলেরা। ম্যাচর ফল মোহনবাগান ১,আইজল এফসি ল ০। এদিনও গোল করে আরও একবার বাগা নের ত্রাতা হয়ে উঠলেন বাবা দিওয়ারা। সোমে রিয়াল কাশ্মীরকে হারিয়ে মোহনবাগানের আই লিগ জয়ের পথ মসৃণ করে দিয়েছিল চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ইষ্টবেঙ্গল। মঙ্গলে আইজলকে হারাতেই বাগান জুড়ে এখন শুধুই বসন্ত। 

আরও পড়নঃকীভাবে জন্ম নিল বিলিয়ন ডলার ক্রিকেট আইপিএল, রইল নয়টি সেরা তথ্য

আইজলের বিরুদ্ধে পূর্ণ শক্তির দল নামানোর ঘোষণা আগেই করেছিলেন বাগান কোচ কিভু ভিকুনা। ম্যাচের প্রথম থেকেই রক্ষণ সামলে আক্রমণে যায় বেইতিয়া, তুর্সুনভ, সুহের, বাবা দিওয়ারারা।  ছোট ছোট স্প্যানিশ ফুটবল টাচে আক্রমণে যাচ্ছিল বাগান। দীর্ঘদিন পর আশুতোষ মেহতা ও ধনচন্দ্র সিং একসঙ্গে খেলায় সচল ছিল বাগানের উইং প্লে। ঘন ঘন ক্রস পাচ্ছিল বাগানের স্ট্রাইকাররা। কিন্তু ম্যাচের প্রথমার্ধে আইজল ডিফেন্সকে ভাঙতে পারেনি বাগান। ফলে গোলশূন্যভাবেই শেষ হয় প্রথমার্ধের খেলা। দ্বিতীয়ার্ধে গোলের জন্য ঝাঁপায় কিভু ব্রিগেড। ৫৪ মিনিটে বাবার গোল অফ সাইডের জন্য বাতিল করেন রেফারি। ম্যাচের ৭৯ মিনিট পর্যন্ত একাধিক সুযোগ তৈরি করেও গোলের মুখ খলতে পারেনি বাগানের অ্যাটাকিং লাইন। ৮০ মিনিটে বাবা দিওয়ারার দূর পাল্লার শট জালে  জড়াতেই পঞ্চমবারের জন্য আই লিগ জয় নিশ্চিত হয়ে যায় ।

 

 

শেষ দশ মিনিটে গোল  পরিষোধ করার মরিয়া চেষ্টা করে আইজল। কিন্তু বাগানের জমাটি রক্ষণ সামলে দেয় সেই আক্রমণ। নির্দিষ্ট সময়ের পর ম্যাচ শেষের বাশি বাঁজতেই উৎসবে মাতলেন কল্যাণি স্টেডিয়ামের প্রায় ১৭ হাজার দর্শক। উৎসবে মাতলেন প্লেয়ার, কোচ থেকে শুরু ক্লাব কর্তারা। এই জয়ের ফলে ৩৯ পয়েন্টে পৌছাল বাগান। যা আই লিগের সব দলের ধরাছোঁয়ার বাইরে। জয়ের পরই দিকে দিকে শুরু হয় উৎসব। ট্রফি নিয়ে আসার দিন বিশেষ শোভাযাত্রার পরিকল্পনা রয়েছে বাগান সমর্থক থেকে শুরু করে ক্লাব কর্তাদের। 

আরও পড়ুনঃটোকিও অলিম্পিকে যোগ্যতা অর্জন করলেন মেরি কম, শুভেচ্ছা কেন্দ্রীয় ক্রীড়া মন্ত্রীর

আরও পড়ুনঃকরোনা আতঙ্কের জের, ভারত সফরে হাত মেলাবেন না প্রোটিয়া ক্রিকেটাররা