প্রথম ও দ্বিতীয় স্থানের মধ্যে পয়েন্টের ব্যবধান ছিল ২৫। আর দুটি ম্যাচ জিততে পারলেই ছিল কেল্লাফতে। অবসান ঘটত ৩০ বছরের অপেক্ষার। ফের একবার ইপিএলের খেতাব ঢুকত লিভারপুলের ঘরে। ইতিহাসের পাতায় নাম লেখাতেন সালহা, মানে, ফির্মিনো, সাকেরিরা। কিন্তু সব কিছুতেই বাধ সাধল করোনা ভাইরাস। ইউরোপের যে কটি দেশের  ব্যাপক থাবা বসিয়েছিল করোনা ভাইরাস তাদের মধ্যে অন্যতম ইংল্যান্ড। পরিস্থিতি বিচার করে ইউরোপ তথা বিশ্বের সবথেকে জনপ্রিয় লিগ ইপিএল স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ। গত ৯ মার্চ অ্যাস্টন ভিলার বিরুদ্ধে লেস্টার সিটির ৪-০ গোলে জয় দিয়ে স্থগিত হয়েছিল ইপিএল। যদিও লিগ স্থগিত হওয়ার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা হয় ১৩ মার্চ।  ফের লিগ কবে থেকে শুরু হবে তা নিয়ে ছিল ধোঁয়াশা। পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলে ধাপে ধাপে শিথিল করা হয় লকডাউন। দীর্ঘ বিরতির পর প্রথমে প্লেয়ারদের ব্যক্তিগত অনুশীলনে ফেরার অনুমতি দিয়েছিল প্রশাসন। তারপর গত বুধবার থেকে অনুমতি দেওয়া হয় দলগত অনুশীলনের। অনুশীলনে নেমে পড়েছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ২০টি ক্লাবই। শুধু অপেক্ষা ছিল কবে থেকে লিগ শুরু হবে তার দিন ঘোষণার। অবশেষে ১৭ জুন থেকে লিগ শুরু কথা ঘোষণা করল ইপিএল কর্তৃপক্ষ। এই ঘোষণার পরই সব থেকে বেশি নতুন আশায় বুক বাঁধছে উর্গান ক্লপের লিভারপুল।

আরও পড়ুনঃকরোনা আবহেই ১৭ জুন থেকে শুরু হচ্ছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ

আরও পড়ুনঃঅবশেষে মিলল সরকারি অনুমতি,২০ জুন থেকে শুরু ইতালির সিরি এ লিগ

লিগ শুরুর খবরে ৩০ বছরের যন্ত্রণা ভুলে ফের ইপিএল চ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্বপ্নে বিভোর লিভারপুল। ১৯৯০-এর পরে ফের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য লিভারপুলের প্রয়োজন মাত্র ৬ পয়েন্ট। ২৯ ম্যাচে ৮২ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবলের শীর্ষে রয়েছেন মহম্মদ সালাহ, সাদিয়ো  মানেরা। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ম্যাঞ্চেস্টার সিটির পয়েন্ট ২৮ ম্যাচে ৫৭। এই পরিস্থিতিতে বাকি ৯টি ম্যাচের মধ্যে দু’টিতে জিতলেই ৮৮ পয়েন্ট হবে লিভারপুলের। ফলে ম্যান সিটি শেষ দশটি ম্যাচে জিতলেও ৮৭ পয়েন্টের বেশি পাবে না। তাই লিগ শুরুর খবরে উজ্জীবিত লিভারপুল শিবির। প্লেয়ারদের মধ্যেও লক্ষ্য করা গেছে উন্মাদনা। এখন শুধু মাঠে নামার অপেক্ষায় ইপিএলের সম্ভাব্য চ্যাম্পিয়নরা। যদিও সব কিছুর মাঝেও ক্লাবের ফুটবলার,কোচ ও সাপোর্টিং স্টাফ ও কর্মীদের সুরক্ষার বিষয়টি নিয়ে তৎপর ক্লাব কর্তৃপক্ষ। ইতিহাস সৃষ্টির আনন্দে কোনওভাবেই ঝুঁকি নিতে নারাজ লিভারপুল কর্তৃপক্ষ। সব দিক সুনিশ্চিত করেই মাঠে ফিরতে চাইছে উর্গান ক্লপের দল। সমস্ত বাধা বিপত্তিকে জয় করে ফের একবার ইতিহাস সৃষ্টির জন্য মরিয়া লিভারপুল।

আরও পড়ুনঃঅক্টোবরের আগে সম্ভব নয় কলকাতা ফুটবল লিগ,জানিয়ে দিল আইএফএ