আবারও দলের ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। যখন সকলে ধরেই নিয়েছে যে তুরিন থেকে তিন পয়েন্ট নিয়েই ফিরছে আটালান্টা, ঠিক সেই সময় ম্যাচের শেষ লগ্নে প্রবল চাপ মাথায় নিয়েও পেনাল্টি থেকে গোল করে নিশ্চিত হারের হাত থেকে জুভেন্তাসকে রক্ষা করলেন ক্রিশ্চিয়ানো। মিলানের কাছে হারের পর কাল রাতে আটালান্টা-র বিরুদ্ধে পুনরায় পয়েন্ট নষ্ট করলো জুভেন্তাস। যদিও এই ড্র-এর পরেও দ্বিতীয় স্থানে থাকা লাৎজিওর থেকে ৮ পয়েন্টে এগিয়ে থাকলো সাদা-কালো ব্রিগেড। 

আরও পড়ুনঃচেলসির হারে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের যোগ্যতা অর্জনে নতুন সমীকরণ

ম্যাচে প্রথমে ডেভন জুপাটার গোল থেকে এগিয়ে গিয়েছিল জুভেন্তাস। প্রথমার্ধ ১-০ গোলে এগিয়ে থেকেই শেষ করে আটালান্টা। দ্বিতীয়ার্ধে ১০ মিনিটের মধ্যে পেনাল্টি পায় জুভে। দিবালার ক্রসে পেনাল্টি বক্সের ভেতরে হাতে লাগিয়ে ফেলে আটালান্টা ডিফেন্ডার। প্রবল বেগে বাঁ দিক ঘেষে মারা ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর পেনাল্টি যখন গোলকিপারের নাগালের বাইরে গোলে আছড়ে পড়ে তখন ম্যাচের বয়স এক ঘণ্টাও হয়নি। 

আরও পড়ুনঃময়দানেই আইএসএল এবং বড় ম্যাচ হবে, ঘোষণা সঞ্জীব গোয়েঙ্কার

আরও পড়ুনঃএবার ভারতীয় ক্রিকেটে করোনার থাবা, আক্রান্ত তারকা ক্রিকেটার

৮০ মিনিটে আটালান্টা-কে পুনরায় এগিয়ে দেন পরিবর্ত হিসাবে নামা রুসলেন ম‍্যালিনোভস্কি। যখন মনে হচ্ছে সবার যে টানা দশম লিগ ম্যাচে জয় পেতে চলেছে আটালান্টা, তখন ফের নাটক। জুভেন্তাসের কর্নার বক্সের মধ্যে হাতে লাগিয়ে ফেলেন লুইস মুরিয়েল। আবার পেনাল্টি নিতে এগিয়ে যান ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো এবং গোলকিপার সঠিক দিক আন্দাজ করে ফেললেও রোনাল্ডো শক্তিশালী শটে হাত লাগাতে ব্যর্থ হন তিনি। এক পয়েন্ট নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয় দুই পক্ষকেই। পরের ম্যাচে সাসুলোর বিরুদ্ধে নামবে জুভেন্তাস। নিজেদের শেষ ম্যাচে লাৎজিও-কে হারিয়েছে তারা। জুভের সামনেও কঠিন চ্যালেঞ্জ প্রস্তুত করতে মরিয়া তারা।