'বিয়ের না করে এসব করা যাবে না', বাবার হুমকিতেই জয়াকে বিয়ে করেছিলেন অমিতাভ

First Published 9, Apr 2020, 10:38 AM

বলিউডের সব থেকে সফল জুটির মধ্যে অমিতাভ ও জয়া বচ্চন অন্যতম। একে অন্যের সঙ্গে অনেক ঝড় ঝাপটার পরও রয়ে গিয়েছেন ভালোবেসে। প্রথম থেকেই জয়ার মনে অমিতাভের জন্য ছিল অনুভুতি। পরবর্তীতে যা প্রেমে পরিণত হয়। তবে বিয়েটা হয়েছিল কেবলই বাবার চোখ রাঙানিতে। 

বলিউডের সব থেকে সফল জুটিদের মধ্যে অন্যতম হলেন জয়া বচ্চন ও অমিতাভ বচ্চন। তাঁদের নিয়ে খুব একটা সম্পর্কের জল্পনা  কখনই জায়গা করেনি পেজ থ্রিতে।

বলিউডের সব থেকে সফল জুটিদের মধ্যে অন্যতম হলেন জয়া বচ্চন ও অমিতাভ বচ্চন। তাঁদের নিয়ে খুব একটা সম্পর্কের জল্পনা কখনই জায়গা করেনি পেজ থ্রিতে।

জয়া বচ্চন বরাবরই নিজেদের সমস্যা ঠাণ্ডা মাথায় মিটিয়ে নিতে পছন্দ করেন। কখনও তিনি প্রকাশ্যে আসতে দেন না অন্তরমহলের ছবি।

জয়া বচ্চন বরাবরই নিজেদের সমস্যা ঠাণ্ডা মাথায় মিটিয়ে নিতে পছন্দ করেন। কখনও তিনি প্রকাশ্যে আসতে দেন না অন্তরমহলের ছবি।

তাঁদের মধ্যে সম্পর্ক শুরুর সময়ও খুব একটা জল ঘোলা হয়নি। সেই সুযোগটাই দেয়নি অমিতাভের পরিবার।

তাঁদের মধ্যে সম্পর্ক শুরুর সময়ও খুব একটা জল ঘোলা হয়নি। সেই সুযোগটাই দেয়নি অমিতাভের পরিবার।

অমিতাভ বচ্চনকে প্রথম দেখেই পছন্দ হয়েছিল জয়া বচ্চনের। তখনও বলিউডে নিজের জায়গা তৈরি করতে ব্যস্ত ছিলেন অভিনেতা।

অমিতাভ বচ্চনকে প্রথম দেখেই পছন্দ হয়েছিল জয়া বচ্চনের। তখনও বলিউডে নিজের জায়গা তৈরি করতে ব্যস্ত ছিলেন অভিনেতা।

এমনই সময় একনজর ছবিতে দুজনে কাজ করেন। এবং একে অন্যের প্রতি ভালোবাসা অনুভব করেন। এরপর একদিন এক কভার পেজে ছবি ছাপা হয় জয়ার।

এমনই সময় একনজর ছবিতে দুজনে কাজ করেন। এবং একে অন্যের প্রতি ভালোবাসা অনুভব করেন। এরপর একদিন এক কভার পেজে ছবি ছাপা হয় জয়ার।

অনেকক্ষণ ধরে সেই ছবি দেখে অমিতাভ সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন, তিনি জয়াকে ভালোবাসেন। এরপর আসে জঞ্জির ছবির প্রস্তাব।

অনেকক্ষণ ধরে সেই ছবি দেখে অমিতাভ সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন, তিনি জয়াকে ভালোবাসেন। এরপর আসে জঞ্জির ছবির প্রস্তাব।

জঞ্জির ছবি সুপার হিট হওয়ার পরই দুজনে যেতে চেয়েছিলেন বাইরে ঘুরতে। কিন্তু বাধা দেন অমিতাভ বচ্চনের বাবা হরিবংশ রাই বচ্চন।

জঞ্জির ছবি সুপার হিট হওয়ার পরই দুজনে যেতে চেয়েছিলেন বাইরে ঘুরতে। কিন্তু বাধা দেন অমিতাভ বচ্চনের বাবা হরিবংশ রাই বচ্চন।

সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন তাঁর সামনে এসব চলবে না। ঘুরতে যেতে হলে বিয়ে করেই যেতে হবে।

সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন তাঁর সামনে এসব চলবে না। ঘুরতে যেতে হলে বিয়ে করেই যেতে হবে।

এরপর গোচ্ছাতে ঠিক যতটা সময় লাগে, ততটাই সময় নিয়েছিলেন দুই সেলেব। তড়িঘড়ি সেরে ফেলেছিলেন বিয়ে। সেখান থেকে শুরু পথ চলা।

এরপর গোচ্ছাতে ঠিক যতটা সময় লাগে, ততটাই সময় নিয়েছিলেন দুই সেলেব। তড়িঘড়ি সেরে ফেলেছিলেন বিয়ে। সেখান থেকে শুরু পথ চলা।

অমিতাভ ও জয়া বচ্চনের সম্পর্কের সমীকরণ আজও সকলের কাছে আদর্শ। এক সাক্ষাৎকারে অমিতাভ বলেছিলে, যেভাবে জয়া আমায় সামলেছে, সেভাবে অন্য কেউ আমায় আগলে রাখতে পারত না।

অমিতাভ ও জয়া বচ্চনের সম্পর্কের সমীকরণ আজও সকলের কাছে আদর্শ। এক সাক্ষাৎকারে অমিতাভ বলেছিলে, যেভাবে জয়া আমায় সামলেছে, সেভাবে অন্য কেউ আমায় আগলে রাখতে পারত না।

loader