ব্রেকফাস্টে রাখুন এই ৫ খাবার, বাড়বে হজমশক্তি, দূর হবে কোষ্ঠকাঠিন্য

First Published 1, Nov 2020, 12:58 PM

গরমের শেষ আর শীতের শুরু।  এই সময়টাতে আবহাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে শরীরেরও পরিবর্তন দেখা যায়। এবং সেই কারণেই ব্রেকফাস্ট থেকে ডিনার সব কিছুরই পরিবর্তন দরকার। সাধারণ কিছু খাবার রয়েছে, যা ব্রেকফাস্টে খেলে হজম ক্ষমতা যেমন বৃদ্ধি পায়, তেমনই দূর হবে কোষ্ঠকাঠিন্য। শরীর সুস্থ রাখতে ব্রেকফাস্টে কী খাবেন রইল তার তালিকা।

<p><strong>কলা-&nbsp;</strong>প্রতিদিনের ব্রেকফাস্টে কলা অবশ্যই রাখুন। কলার গুনাগুন সম্পর্কে সকলেই জানেন। &nbsp;যাদের কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা রয়েছে তারা প্রতিদিন কলা খান।<br />
&nbsp;</p>

কলা- প্রতিদিনের ব্রেকফাস্টে কলা অবশ্যই রাখুন। কলার গুনাগুন সম্পর্কে সকলেই জানেন।  যাদের কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা রয়েছে তারা প্রতিদিন কলা খান।
 

<p><strong>পেঁপে- </strong>প্রতিদিন সকালবেলার খাবারটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সেইদিক থেকে পেঁপে খুব উপকারী। প্রতিদিনের ব্রেকফাস্টে পাকা পেঁপে থাকলে তা হজম শক্তি বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে, এবং পেঁপেতে প্যাপাইন নামক &nbsp;উৎসেচক রয়েছে, যা হজমশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।</p>

পেঁপে- প্রতিদিন সকালবেলার খাবারটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সেইদিক থেকে পেঁপে খুব উপকারী। প্রতিদিনের ব্রেকফাস্টে পাকা পেঁপে থাকলে তা হজম শক্তি বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে, এবং পেঁপেতে প্যাপাইন নামক  উৎসেচক রয়েছে, যা হজমশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।

<p><strong>আপেল-</strong> &nbsp;পটাশিয়াম, মিনারেলস, এবং ভিটামিন-সি তে পরিপূর্ণ আপেল প্রতিদিনের ব্রেকফাস্টে রাখুন। এতে হজম ক্ষমতা যেমন &nbsp;বাড়ে তেমনই কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়।</p>

আপেল-  পটাশিয়াম, মিনারেলস, এবং ভিটামিন-সি তে পরিপূর্ণ আপেল প্রতিদিনের ব্রেকফাস্টে রাখুন। এতে হজম ক্ষমতা যেমন  বাড়ে তেমনই কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়।

<p><strong>শশা-&nbsp;</strong>হজমের জন্য সবচেয়ে উপকারী শশা। শশাতে ইরেপসিন নামক উৎসেচক রয়েছে। গ্যাসের সমস্যা থেকে পেপটিক আলসার বিভিন্ন সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন শশা খেলে। ওজন কমানোর জন্য শশা শরীরের জন্য উপকারী।</p>

শশা- হজমের জন্য সবচেয়ে উপকারী শশা। শশাতে ইরেপসিন নামক উৎসেচক রয়েছে। গ্যাসের সমস্যা থেকে পেপটিক আলসার বিভিন্ন সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে পারেন শশা খেলে। ওজন কমানোর জন্য শশা শরীরের জন্য উপকারী।

<p><strong>মধু- </strong>মধুর কোনও বিকল্প নেই। গলার খুসখুস কমানোর পাশাপাশি মধু ঠান্ডা দূর করে। গরম জলে লেবু ও মধু একসঙ্গে মিশিয়ে খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। &nbsp;সকালে এটি খেলে মেটাবলিজম বাড়ে।</p>

মধু- মধুর কোনও বিকল্প নেই। গলার খুসখুস কমানোর পাশাপাশি মধু ঠান্ডা দূর করে। গরম জলে লেবু ও মধু একসঙ্গে মিশিয়ে খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।  সকালে এটি খেলে মেটাবলিজম বাড়ে।