Asianet News BanglaAsianet News Bangla

ঋতু পরিবর্তনের সময় সর্দি-কাশির সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে গুড় খান, রইল গুড়ের পাঁচটি গুণের হদিশ

ঋতু পরিবর্তনের সময় জ্বর খুবই সাধারণ বিষয়। এই সময় সুস্থ থাকতে গুড় খেতে পারেন। রোজ ১ টুকরো করে গুড় খেলে মিলবে পাঁচটি উপকর। জেনে নিন কী কী।

Eat jaggery to get relief from season change fever and flu problems ABSC
Author
First Published Sep 19, 2022, 6:05 AM IST

কখনও নিম্নচাপের কারণে বৃষ্টি তো কখনও রোদ। প্রকৃতির এই খেলায় নাজেহাল অবস্থা সকলে। প্রকৃতির এই বারে বারে পরিবর্তনের কারণে অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। এই সময় জলৃর, সর্দি, কাশির মতো সমস্যায় ভুগছেন অনেকে। কারও কারও দেখা দিচ্ছে আরও অন্য কোনও জটিলতা। ঋতু পরিবর্তনের সময় জ্বর খুবই সাধারণ বিষয়। এই সময় সুস্থ থাকতে গুড় খেতে পারেন। রোজ ১ টুকরো করে গুড় খেলে মিলবে পাঁচটি উপকর। জেনে নিন কী কী। 

গুড় শরীরের সকল দুষিত পদার্থ বের করতে সাহায্য করে। ২০০৯ সালে একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে, গুড়ে আছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট। আছে সাইটোপ্রোটেক্টিঊ গুণ। যা ফুসফুসের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে সাহায্য করে। এই সময় অনেকের ফুসফুসে সংক্রমণ দেখা যাচ্ছে। ফুসফুস ভালো রাখতে রোজ ১ টুকরো করে গুড় খান। 

এই সময় পেটের সমস্যা সাধারণ বিষয়। এমন আবহাওয়া থাকলে খাবার সহজে হজম হয় না। সুস্থ থাকতে চাইলে রোজ ১ টুকরো করে গুড় খান। এতে যেমন হজম জনিত সমস্যা দূর হবে তেমনই কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে মিলবে মুক্তি। 

রোজ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে বেশ উপকারী গুড়। এটি শরীরকে যে কোনও রোগের সঙ্গে লড়াই করতে সাহায্য করে। সঙ্গে ঠান্ডা লাগা, ফ্লু-এর মতো সমস্যা থেকে দেয় মুক্তি। তাই খেতে পারে গুড়। 

রক্তশূন্যতার সমস্যা দূর হয় রোজ ১ টুকরো করে গুড় খেলে। বর্তমানে সারা বছরই সব ধরনের খাবার পাওয়া যায়। এতে ছে আয়রন ও ফসফরাস। যা শরীরে হিমোগ্লোবিন তৈরিতে সাহায্য কর। যাদের শরীরে আয়রনের ঘাটত আছে তারা খেতে পারেন গুড়। মিলবে উপকার। 

পুজোর আগে ওজন কমাতে সকলে মরিয়া। প্রায় সকলেই খাদ্যতালিকা থেকে বাদ দিয়েছেন চিনি। এই সময় চিনির বিকল্প হিসেবে বেছে নিতে পারেন গুড়। এটি রক্তে শর্করার মাত্রা রাখে নিয়ন্ত্রণে তেমনই ওজন কমাতে সাহায্য করে। যে কোনও পদ তৈরিতে চিনির বদলে গুড় দিন। এতে আছে উপকারী উপাদান। এতে ওজনও কমবে তেমনই শরীর থাকবে সুস্থ। মেনে চলুন এই বিশেষ টিপস। 

সঙ্গে রোজ প্রচুর পরিমাণে জল খান। দিনে ৭ থেকে ৮ গ্লাস জল খাওয়া দরকার। এই সময় অধিকাংশই ডিহাইড্রেশনের সমস্যায় ভোগেন। এর থেকে মুক্তি পেতে প্রয়োজন পর্যাপ্ত জল খাওয়া। এতে পেটের সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন।      
 

আরও পড়ুন- সারা রাত ধরে কাশছে বাচ্চা? ঘরোয়া উপায়ে কমান শিশুর শুকনো কাশি

আরও পড়ুন- পেঁয়াজ-রসুন ছাড়াই দারুণ স্বাদের শাহী পনীর, তৈরি হবে মাত্র ১০ মিনিটে

আরও পড়ুন- কোনও ব্যথা ছাড়াই রক্ত জমাট বাঁধতে পারে মাথায়! এই উপসর্গগুলির কোনওটা আপনার শরীরে নেই তো?

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios