বিয়ের মরশুম চলছে। আর এই সময়টাতে রোগা হওয়ার জন্য যেমন মনটা পাগল হয়ে ওঠে। কীভাবে নিজের ওজনকে বশে রাখা যায় এই চিন্তাতেই বিভোর থাকেন নববধূরা। ইউটিউব ভিডিও দেখা থেকে, কড়া ডায়েট সব করেও যেন রোগা হওয়া যাচ্ছে না। এদিকে হাতে সময়ও খুব কম। বিয়ের আর মাত্র কয়েকদিন বাকি। কিন্তু আয়নার সামনে দাঁড়ালে মনে হচ্ছে আরও একটু রোগা হলে বেশি ভাল লাগত। কম সময়ের মধ্যে বিয়ের আগে কীভাবে নিজেকে ফিট রাখবেন  রইল কিছু ফিটনেস ফান্ডা।

আরও পড়ুন-৫০ হাজারের কোটায় ছুঁই ছুঁই সোনার দাম, বিয়ের মরশুমে কীভাবে লাভবান হবেন...


এতদিন যেহেতু এক্সারসাোইজ করেননি তাই কোথা থেকে শুরু করবেন বুঝে উঠতে পারছেন না। এক্সারসাইজের অভ্যাস না থাকলে সবার প্রথমে হাঁটা শুরু করুন। কারণ হাঁটাতেই লুকিয়ে রয়েছে সুস্থতার চাবিকাঠি। বিয়ের আগে নিজেকে স্লিম এন্ড ট্রিম রাখতে প্রতিদিন হাঁটুন। আর হাতে যদি এক থেকে দুমাস সময় থাকে তাহলে তো কোনও কথাই নেই, প্রতিদিন নিয়ম করে  দুবেলা হাঁটা শুরু করুন। বিয়ের যেহেতু আর বেশিদিন বাকি নেই তাই নিজেকে ফিট রাখতে গিয়ে কঠোর ডায়েটের মধ্যে একদম যাবেন না। সবকিছুই খাবেন কিন্তু অল্প পরিমাণে। বেশি করে জল খান। এতে শরীর থেকে টক্সিন দূর হবে।

আরও পড়ুন-মাত্র ৫ মাসে ৮৮০০ শতাংশ, শেয়ার দরে অবিশ্বাস্য উত্থান রুচি সোয়া ইন্ডাস্ট্রিজ-এর...

সকালের ব্রেকফাস্ট কখনওই এড়াবেন না। সকালের দিকে ভারি খাবার খান। দুপুরে হাল্কা খাবার খান। যতটা পারবেন জাঙ্ক ফুড এড়িয়ে চলুন। খাওয়ার পরই আসে ঘুম। পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুম শরীরের জন্য ভীষণ জরুরি।  তবে অত্যাধিক ঘুম আবার বিপদ ডেকে আনে। রাতে ৮-৯ ঘন্টা ঘুমোন কিন্তু ১০-১২ ঘন্টা কখনওই ঘুমোবেন না। রোগা হতে চাইলে বিয়ের আগে চকোলেট, চিপস, আইসক্রিম ভুলে যান পরিবর্তে টাটকা শাক-সব্জি খান। এতে শরীর যেমন ভাল থাকবে তেমনই ত্বক উজ্জ্বল দেখাবে। সন্ধ্যাবেলায় প্রতিদিন কুড়ি মিনিট অ্যারোবিক এক্সারসাইজ করুন। এতে শরীরে রক্ত চলাচল ঠিক থাকবে। ধীরে ধীরে জগিংও করতে পারেন। অ্যালকোহল, সিগারেট থেকে নিজে দূরে থাকুন। প্রতিদিন ঘুমোতে যাওয়ার আগে দশ মিনিট হাঁটাচলা করে নিন। এতে শরীরের রক্ত চলাচল ঠিকমতো হবে। তবে বিয়ের একসপ্তাহ আগে নয়, বরং বিয়ের কয়েকমাস আগে থেকে নিয়ম করে এই জিনিসগুলি মেনে চললেই আপনি ফিট থাকবেন আবার স্লিম অ্যান্ড ট্রিমও হয়ে যাবেন।