কেরলের কোঝিকোড় জেলার পেরাম্ব্রার এক কলেজের ক্যাম্পাসে উড়ল 'পাকিস্তানি পতাকা'। সোশ্যাল নেটওয়ার্কে সেই ভিডিও হল ভাইরাল। আর তা দেখে ৩০ জন ছাত্রের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করল কেরল পুলিশ। তবে ওই ছাত্ররা যে ছাত্র সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত সেই মুসলিম স্টুডেন্টস ফ্রন্ট বা এমএসএফ-এর দাবি এটা নেহাতই ভুল বোঝাবুঝির ঘটনা, পতাকা বিভ্রাট।

কেরল পুলিশ জানিয়েছে ঘটনাটি বৃহস্পতিবারের। পেরাম্ব্রার সিলভার কলেজে সামনেই ছাত্র সংসদের নির্বাচন। তারই প্রচার পর্ব চলছিল। কেরল স্টুডেন্স ইউনিয়ন বা কেএসইউ এবং এমএসএফ, ইউনাইটেড ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট গড়ে লড়ছে। তাদেরই যৌথ মিছিলে পাকিস্তানের পতাকা ওড়ানোর অভিযোগ উঠেছে।

আরও পড়ুন - কেরলের কলেজে পাকিস্তানের পতাকা উত্তোলন, পুলিশের জালে ৩০ জন ছাত্র নেতা

আরও পড়ুন - পাকিস্তানের পতাকা শরীরে কেন জড়ালেন রাখি সাওয়ান্ত! মুহূর্তে ভাইরাল সেই ছবি

আরও পড়ুন - ফের প্রকাশ্যে চুম্বন, অস্বস্তিতে পড়লেন রাহুল! পশ্চিমবঙ্গ, গুজরাতের পর এবার কেরলে, দেখুন ভিডিও

আরও পড়ুন - মেলাচ্ছে প্রকৃতির রোষই, জল নামতেই ইদের দিনে কেরলে সম্প্রীতির এক অনন্য ছবি

ঘটনার যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে, সেখানে দুই সংগঠনের ছোট ছোট পতাকার মাঝখানে একটি বড় মাপের পতাকা দেখা যাচ্ছে, যার সঙ্গে প্রভূত মিল রয়েছে পাকিস্তানের জাতীয় পতাকার। যদিও পুলিশ পরীক্ষা করে দেখেছে পতাকাটির সঙ্গে পাকিস্তানের পতাকার মিল থাকলেও পতাকাটি হুবহু এক নয়।

তারপরও ভিডিও দেখে ৩০ জন ছাত্রকে চিহ্নিত করে কেরল পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে বেআইনি জমায়েত, দাঙ্গা বাধাবার চেষ্টা-সহ একাধিক ধারায় মামলা রুজু করেছে। পেরাম্ব্রা পুলিশের এক কর্তা জানিয়েছেন প্রত্যেক ছাত্রের অতীত রেকর্ড খতিয়ে দেখা হয়েছে। সেখানে সন্দেহজনক বা শঙ্কিত হওয়ার মতো কিছু পাওয়া যায়নি।

মুসলিম স্টুডেন্টস ফ্রন্ট ইন্ডিয়ান মুসলিম লিগের ছাত্র সংগঠন। তাদের দাবি পতাকা ছাপার সময়ই বড়সড় গন্ডোগোল হয়েছে। আর তা নেওয়ার সময় ছাত্ররা দেখে না নেওয়াতেই বিপত্তি। তাদের দাবি, তাদের সংগঠনের পতাকায় সমান ভাগে, উপরে থাকে সবুজ, নিচে সাদা। নিচের সাদা অংশে থাকে তাদের সংগঠনের আদ্যাক্ষর, আর উপরের সবুজ অংশের ডানদিকের কোনার দিকে থাকে চাঁদ ও তারা। যে পতাকাটি নিয়ে বিতর্ক, সেটি ছাপার রঙের অনুপাতে ভুল করায় পাকিস্তানের পতাকা বলে মনে হয়েছে।