শুধু পাক জঙ্গিরাই নন, এবার জম্মু কাশ্মীরে অনুপ্রবেশের জন্য প্রস্তুত আফগান ও পাস্তো জঙ্গিরাও। প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের গোয়েন্দা সূত্রে এমন তথ্যই মিলেছে। সেই প্রতিবেদন অনুযায়ী একজন-দুজন নয়, প্রায় শতাধিক আফগান ও পস্তু জঙ্গিরা নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর বিভিন্ন স্থানে জড়ো হয়েছেন ভারতে অনুপ্রবেশের জন্য।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের ওই সূত্রটি জানিয়েছে, উত্তর কাশ্মীরের লিপা উপত্যকা দিয়ে নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে পাকিস্তানি জঙ্গিগোষ্ঠী জইশ-ই-মহম্মদ ভারতে  অনুপ্রবেশের চেষ্টা করছে। এই কারণে অন্তত ১২ জনের বেশি জঙ্গিদের একটি দলকে ইতিমধ্যেই পাঠিয়েছে জেইএম। সেই দলে পাকিস্তানের প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত এসএসজি-র সদস্যদের সঙ্গে রয়েছেন আফগান জঙ্গিরাও। এইভাবে নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর উত্তেজনা জিগিয়ে রেখে কাশ্মীরের একটি 'ভয়ঙ্কর' ছবি বিশ্বের সামনে তুলে ধরতে চাইছে পাকিস্তান, এমনটাই মনে করছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক।

আরও পড়ুন - পাক অধিকৃত ফের সক্রিয় অন্তত এক ডজন জঙ্গি শিবির, জারি হল সতর্কতা

আরও পড়ুন - বালাকোট এয়ারস্ট্রাইক, বিশেষ সম্মান পেলেন বায়ুসেনার সেই পাঁচ পাইলট

আরো পড়ুন - ফের বিশ্বকে ধোকা পাকিস্তানের! পিঠ বাঁচাতে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে ভুয়ো এফআইআর

আরো পড়ুন - মধ্যপ্রদেশে আফগান জঙ্গির উপস্থিতি, গুজরাত সীমান্তে জারি সতর্কতা

তবে আফগান ও পাস্তো জঙ্গিদের ভারতে পাঠানোর একটা অন্য কারণও আছে বলে মনে করা হচ্ছে। দিন কয়েক আগে ভারতীয় সেনার সমীক্ষাতেই দেখা গিয়েছিল জম্মু -কাশ্মীরের স্থানীয় যে যুবকরা জঙ্গি দলে নাম লেখান, তাদের আয়ু গড়ে চার-পাঁচ মাসের বেশি হয় না। প্রথমত স্থানীয় বাসিন্দা হওয়ায় তাদের সম্পর্কে নিরাপত্তা বাহিনীর তথ্য সংগ্রহ করা অনেক সহজ। আর দ্বিতীয়ত, তাদের জঙ্গি প্রশিক্ষণ ভালভাবে হয় না। তার থেকে বিদেশী অর্থাৎ আফগান ও পাকিস্তানি জঙ্গিরা অনেক বেশি প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও যুদ্ধের বিষয়ে অভিজ্ঞ।

এর পাশাপাশি এই মুহূর্তে পাক অধিকৃত কাশ্মীরেও বহু ।যিবককে দলে টানার চেষ্টা করছে পাকিস্তানি জঙ্গি গোষ্ঠীগুলি বলে খবর রয়েছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের গোয়েন্দাদের কাছে।