১৪ দিন ধরেই গ্যাস লিক হচ্ছিল। মঙ্গলবার আগুন লেগে গিয়েছিল। ২৪ ঘণ্টা পরেও বহু দূর থেকে দেখা যাচ্ছে আগুনের লেলিহান শিখা। অসমের ওয়েল ইন্ডিয়ার তেল কূপ এখনও জ্বলছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গিয়ে ইতিমধ্যেই মৃত্যু হয়েছে দুই দমকল কর্মীর।  মৃতরা হলেন ৫৬ বছরের বিকেশ্বর গোহাইন ও ৩০ বছরের দুর্লভ গগৈ। বুধবার সকালে তেল কূপ সংলগ্ন একটি পুকুর থেকে উদ্ধার হয়েছে দুজনের নিথর দেহ। তেল কূপের আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে ভারতীয় সেনা ও বিমান বাহিনী হাত মিলিয়েছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর সঙ্গে। 

বুধবার অসমের মুখ্য়মন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল বায়ু সেনার বিমানে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। তাঁর সঙ্গে ছিলেন শিল্পমন্ত্রী চন্দ্র মোহন পাটওয়ারি।  এদিন অসমের মুখ্যমন্ত্র কথা বলেন তিনসুকিয়ার স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে। ঘটনাস্থল সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দাদের ইতিমধ্যেই সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে অন্যত্র। তবে ইতিমধ্যেই বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে ধরা পড়েছে ধ্বংসলীলার ছবি। 

লাদাখ ইস্যুতে 'শায়েরি রাজনীতি' অব্যাহত রাহুল বনাম বিজেপির, অমিত শাহর হাত ধরেই পাপ্পু হলেন বাবা ...

নষ্ট হয়ে গেছে সবুজ। বিস্তীর্ণ এলাকা ঢাকা পড়েছে কালো ধোঁয়ায়। আগেই নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে স্থানীয় বাসিন্দাদের। দেড় কিলোমিটার ব্যাসার্ধ এলাকা পুরোপুরি খালি করা হয়েছে। 

ভালোবাসার নির্মম পরিণতি, দলিত যুবককে পাথর দিয়ে থেঁতলে পিটিয়ে খুন পুনেতে ...

গত ২৭ মে বাঘজান গ্য়াস কূপে একটি বিস্ফোরণ হয়। সেই সময় মাটির প্রায় ৩.৭২৯ মিটার গভীরে তেল ও গ্যাস বহনকারী জলাশয় থেকে গ্যাস উত্তোলনের কাজ চলছিল। যান্ত্রিক ত্রুটির জন্যই তেল কূপে বিস্ফোরণ হয় বলে সংস্থার পক্ষ থেকে জানান হয়েছিল। তারপর থেকে ওই কূপ দিয়ে ক্রমাগত গ্যাস লিক করে যাচ্ছিল। যা মেরামতির জন্য সিঙ্গাপুর থেকে বিশেষজ্ঞদেরও তলব করা হয়েছিল। সোমবার থেকেই তাঁরা জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর সাহায্য নিয়ে কাজ করছিলেন। কিন্তু এদিন দুর্ঘটনার সময় তাঁরা ঘটনাস্থলে ছিলেন না বলে সূত্রের মাধ্যমে জানা যাচ্ছে। সেই সময় তাঁরা ধূলিয়াজানে সংস্থার আধিকারিকদের সঙ্গে একটি বৈঠকে যোগ দিয়েছিলেন। 

আনলক পর্বে চোরা স্রোতের মত বাড়তে পারে করোনা আক্রান্তের সংখ্য়া, বড় বিপদের ইঙ্গিত বিশেষজ্ঞদের ...