টিকটক স্টার হিসেবে রীতিমত জনপ্রিয় সোনালি ফোগট। বর্তমানে গেরুয়া শিবিরে নাম লিখিয়ে সরাসরি নেত্রীর আসন দখল করেছেন। আর সেই সোনালি ফোগটেরই নতুন কীর্তি ভাইরাল নেট দুনিয়ায়। যানিয়ে রীতিমত সরগরম হরিয়ানার রাজনীতি। 

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে সোনালি ফোগট এক এক সরকারি আধিকারিককে রীতিমত জুতো পেটা করছেন। আর আক্রান্ত আধিকারিক মার খেয়ে কাতরে কাতরে উঠছেন।  চারপাশে বহু মানুষই জড়ো হয়ে সেই দৃশ্য দেখছেন। যার মধ্য ছিল হরিয়ানার এক পুলিশ আধিকারিকও। যিনি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার কোনও চেষ্টাই করেননি। 

আক্রান্ত ব্যক্তি বালসম্যান্ড মার্কেট কমিটির সম্পাদক সুলতান সিং। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে  অশালীন মন্তব্য করে সুলতান সিংকে মারছেন আর বলেছেন, তিনি রাস্তায় নেমে কাজ করছেন। আর তাঁকে উদ্দেশ্য করে কটুক্তি করা হচ্ছে। তাঁর কি কোনও মানসম্মান নেই? সম্মানের সঙ্গে তিনি বাঁচতে পারবেন না বলেও অভিযোগ করেছেন। তবে কিছুক্ষণ করে অবশ্য সোনালি নিজে থেকেই খান্ত দেন। পুলিশকে সুলতান সিংয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করতে বলেন। সোনালির অভিযোগ, তাঁকে উদ্দেশ্য করে অশালিন মন্তব্য করেছিলেন সরকারি  আধিকারিক। 

মুসলিম অধ্যুষিত বলেই কি নিশানা, বিদ্বেষ ছড়ানোর অভিযোগ দায়ের মানেকা গান্ধীর বিরু

হরিয়ানার হিসার জেলায় শুক্রবার এই ঘটনার সাক্ষী থাকে। কৃষকদের অভিযোগের তালিকা নিয়েই তাঁর সঙ্গে আধিকারিকের বচসা বাধে। আর সেই সময়ই আধিকারিক তাঁকে তাঁকে উদ্দেশ্য করে কটুক্তি করে বলে অভিযোগ। এই ঘটনার পরই সোনালি মারমুখী হয়। 

ডনের ঘরে করোনার হানা, দাউদ দম্পতি ভর্তি করাচির সেনা হাসপাতালে ...

এরপরই এই ভাইরাল হওয়া ভিডিও নিয়ে আসরে নেমে পড়ে কংগ্রেস। দলের মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা বলেন, হরিয়ানায় কি সরকারি কর্মী হওয়া পাপ? এই রাজ্যেই এক কর্মীকে পশুর মত মারধর করা হচ্ছে। খট্টর সরকার এর বিরুদ্ধে কি কোনও ব্যবস্থা নেবে। 

সন্ত্রাসবাদের স্নায়ুকেন্দ্র পাকিস্তান, ইমরানের বিবৃতি তুলে নিশানা ভারতের