ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করে সোশ্যাল মিডিয়ায় আপত্তিজনক পোস্ট করার জের। ১৯ বছরের এক ছাত্রীকে অভিনব শাস্তি দিল রাঁচির এক আদালত। ওই তরুণীকে পাঁচটি কোরান বিতরণ করার নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক। 

আরও পড়ুন- 'মাই লর্ড' বা 'ইওর লর্ডশিপ' বলে আর সম্বোধন করা যাবে না বিচারপতিদের, জানাল হাইকোর্ট

রিচা ভারতী নামে ওই প্রথম বর্ষের কলেজ পড়ুয়া কয়েকদিন আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় আপত্তিজনক একটি পোস্ট করেন। অভিযোগ, সেই পোস্টে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষের ভাবাবেগকে আঘাত করা হয়েছে। এর পরেই শনিবার ওই ছাত্রীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। যা নিয়ে চাঞ্চল্য ছড়ায়। 

আরও পড়ুন- জট কাটিয়ে ভারতের জন্য আকাশপথ খুলে দিল পাকিস্তান

আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী, একটি কোরান স্থানীয় একটি মুসলিম সংগঠনকে দান করতে হবে ওই ছাত্রীকে। বাকি চারটি কোরান বিভিন্ন স্কুল এবং কলেজের লাইব্রেরিতে দিতে হবে। 

রিচার গ্রেফতারির প্রতিবাদেও অবশ্য সরব হিন্দু সংগঠনগুলিও। পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশকে হস্তক্ষেপ করতে হয়। 

আরও পড়ুন- মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় আপত্তিকর পোস্ট, পুলিশের জালে অভিযুক্ত

শেষ পর্যন্ত আদালতে দুই সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিরা সম্মতি দিলে ওই ছাত্রীর জামিন মঞ্জুর করেন বিচারক। শাস্তি স্বরূপ তাঁকে পাঁচটি কোরান বিতরণ করার নির্দেশ দেন তিনি। 

অভিযুক্ত ছাত্রীর আইনজীবী আদালতকে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, পনেরো দিনের মধ্যে ওই নির্দেশিকা পালন করা হবে। যদিও আদালতের এই রায়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন স্থানীয় বিজেপি নেতারা। হিন্দু সংগঠনের মাথারাও এই প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন।