গত কয়েকদিন ধরে দেশে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিনই রেকর্ড গড়ছে। সোমবারও আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়াল ১১ হাজারের গণ্ডি। এই নিয়ে টানা ৩ দিন আক্রান্তের সংখ্যা থাকল ১১ হাজারের বেশি গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মারণ ভাইরাসের সংক্রমমের শিকার হয়েছেন ১১ হাজার ৫০২। ফলে ভারতে বর্তমানে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩ লক্ষ ৩২ হাজার ৪২৪। গত ২৪ ঘণ্টায় মারণ ভাইরাস প্রাণ কেড়েছে ৩২৫ জনের। ফলে দেশে করোনায় মৃত্যু বেড়ে হয়েছে ৯,৫২০। বর্তমানে করোনায় মৃতের সংখ্যায় ৯ নম্বরে রয়েছে ভারত। 

 

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যা বলছে করোনা সারিয়ে এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়েছে ১ লক্ষ ৬৯ হাজার ৭৯৮ জন। ফলে দেশে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ১ লক্ষ ৫৩ হাজার ১০৬। ফলে গত কয়েকদিনের মত সোমবারও দেশে সক্রিয় আক্রান্তের থেকে করোনা জিতে সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা বেশি থাকল। এর মধ্যেই আশার খবর শুনিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক। দেশে সংক্রমমের সংখ্যা বাড়লেও সুস্থতার হার ৫১ শতাংশে পৌঁছেছে। যা এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি।

করোনার বিরুদ্ধে এবার জিতে গেল ফ্রান্সও, বিধিনিষেধ তুলে নেওয়ার ঘোষণা প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোর

লাফিয়ে লাফিয় ফের বাড়ছে সংক্রমণ, লকডাউনের পর এবার গণহারে করোনার পরীক্ষা শুরু বেজিংয়ে

করোন নিয়ে আরও আশঙ্কার কথা শোনালেন গবেষকরা, ভারতে নভেম্বরে সবচেয়ে তীব্র হবে সংক্রমণ

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চ জানিয়েছে ভারতে এখনও পর্যন্ত মোট ৫৭ লক্ষ ৭৪ হাজার ১৩৩ জনের করোনা পরীক্ষা হয়েছে। এরমধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় গোটা দেশে করোনা পরীক্ষা হয়েছে ১ লক্ষ ১৫ হাজারের বেশি।

 

এদিকে দেশে করোনা সংক্রমণে এখনও এক নম্বরে রয়েছে মহারাষ্ট্র। রাজ্যটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় সংক্রমণের শিকার হয়েছে ৩,৩৯০ জন। মৃত্যু হয়েছে ১২০ জনের। যার মধ্যে কেবল মুম্বইতেই মৃতের সংখ্যা ৬৯। ফলে মহারাষ্ট্রে বর্তমানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছে গিয়েছে ১ লক্ষ ৭ হাজার ৯৫৮তে। মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩,৯৫০। রাজ্যটিতে এখনও পর্যন্ত করোনা পরীক্ষা হয়েছে ৬ লক্ষ ৫৭ হাজারের বেশি।

মহারাষ্ট্রের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা রাজধানী মুম্বইয়ের। আক্রান্তের সংখ্যা দেশের বাণিজ্য রাজধানীতে ৫৮ হাজারের বেশি। মুম্বইতে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ২,১৮২ জনের। মহারাষ্ট্রের রাজধানীতে এখন সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা ২৯ হাজারের বেশি। এরমধ্যেই আজ থেকে মুম্বইতে জরুরি পরিষেবার জন্য চলতে শুরু করেছে লোকাল ট্রেন।

পরিস্থিতি দিনে দিনে খারাপ হচ্ছে রাজধানী দিল্লিরও। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজধানীতে সংক্রমণের শিকার ২,২২৪ জন। যা দৈনিক হিসাবে দিল্লিতে রেকর্ড। বর্তমানে রাজ্যটিতে আক্রান্তের সংখ্যা গিয়ে পৌঁছেছে ৪১ হাজার ১৮২তে।  মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১,৩২৭। রাজধানীতের বর্তমানে সক্রিয়া আক্রান্তের সংখ্যা ২৪ হাজারের বেশি।