প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা স্বামী চিন্ময়ানন্দের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছিল এক ছাত্রী। ২৩ বছরের আইনের ছাত্রীর দাবি ছিল, প্রায় এক বছর ধরে চিন্ময়ানন্দ তাঁর ওপর যৌন নিগ্রহ ও শারীরিক নির্যাতন চালিয়েছে। অভিযোগকারী উত্তর প্রদেশের বাসিন্দা। তাঁর এও দাবি ছিল যে, উত্তরপ্রদেশ পুলিশের কাছে অভিযোগ জানালেও কোনও লাভ হয়নি কারণ উত্তরপ্রদেশ পুলিশ তার অভিযোগ নিতে চায়নি। তাই বাধ্য হয়েই সে দিল্লিতে এসে অভিযোগ দায়ের করেছে। তরুণীর আরও অভিযোগ, তাঁকে এক বছর ধরে লাগাতার ধর্ষণ এবং তা ক্যামেরাবন্দি করে তাকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগও এনেছিল সেই ছাত্রী। 

আর এবার তাঁর অভিযোগের সত্যতার প্রমাণ দিতেই একটি ভিডিও  ফুটেজ পেন ড্রাইভে ভরে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে অভিযোগকারী ওই ছাত্রীর এক বন্ধু। প্রসঙ্গত, এই ঘটনার তদন্ত করার জন্য গঠন করা হয়েছিল একটি বিশেষ তদন্তকারী দল। সেই বিশেষ তদন্তকারী দলের হাতেও সেই পেন ড্রাইভ তুলে দেওয়া হয়েছে বলে খবর। সূত্রের খবর, চশমায়ে ক্যামেরা লাগিয়েই স্বামী চিন্ময়নন্দের সমস্ত কুকীর্তির রেকর্ড করেছে সে। 

ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ বিজেপির প্রাক্তন সাংসদের বিরুদ্ধে,তদন্তের নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট

অর্থনীতি নিয়ে উদ্বিগ্ন, তিহার জেল থেকেই টুইট করে জানালেন পি চিদম্বরম

আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবতের গাড়ির সঙ্গে ধাক্কা, প্রাণ গেল ছয় বছরের শিশুর

পক্ষীকূল বাঁচাতে অভিনব উদ্যোগ,অপ্রয়োজনীয় জিনিস দিয়ে কৃত্রিম পাখির বাসা বানিয়ে তাক লাগালেন ব্য়ক্তি

সূত্র মারফত আরও জানা গিয়েছে যে, স্বামী চিন্ময়ানন্দ পরিচালিত ল কলেজে ভর্তি হওয়ার জন্যই তাঁর কাছে গিয়েছিল বছর ২৩-এর এই তরুণী। এরপর চিন্ময়ানন্দ শুধু তাঁকে কলেজে ভর্তি হওয়ারই সুযোগ দেয়নি বরং তাঁকে কলেজের লাইব্রেরিতে একটি চাকরিরও ব্যবস্থা করে দেয়। পরিবারে অর্থনীতির পরিস্থিতি খুব একটা ভাল না হওয়ায় চাকরিটা তাঁর খুবই প্রয়োজন ছিল। পরবর্তীকালে তাঁকে হস্টেলে চলে আসার জন্য বলেন চিন্ময়ানন্দ। এরপরই ঘটে সেই বিপত্তি। হস্টেলের বাথরুমে তরুণীর স্নানের ভিডিও দেখিয়ে  তাঁকে হুমকি দেওয়া হয় সেই ভিডিও ফাঁস করে দেওয়ার। এরপরই ওই তরুণী সিদ্ধান্ত নেয় তার কীর্তিকলাপ যেভাবেই হোক রেকর্ড করে রাখবে সে।