মোদী সরকারের আনা কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে ক্রমশই তীব্রতর হচ্ছে। শুক্রবার কৃষি আইনের প্রতিবাদে পথে নামেন উত্তরাখণ্ডের উধন সিং নগর জেলার কৃষকরা। তাদের প্রতিহত করতে মোতায়েন করা হয় স্থানীয় পুলিশ বাহিনী। উত্তরাখণ্ড পুলিশের পক্ষ থেকে একটি অস্থায়ী ব্যারিকেডও তৈরি করা হয়। কিন্তু তা ভেঙেই এগিয়ে যায় কৃষকদের মিছিল। আর সেই ছবিই ভাইরাল নেটদুনিয়ায়। 

সংবাদ সংস্থার প্রকাশিত ছবিতে দেখা যাচ্ছে উত্তারণ্ড পুলিশের পক্ষ থেকে একটি অস্থায়ী ব্যারিকেড তৈরি করা হয়েছিল। একপ্রান্তে মোতায়েন ছিল প্রচুর পুলিশ আর অন্যপ্রান্তে জমায়েত হয়েছিল আন্দোলনকারী কৃষকরা। সেই সময় একটি সবুজ ট্রাক্টর এগিয়ে যায়। প্রবল ধ্বস্তাধ্বস্তির পর ট্রাক্টরটি পুলিশের বাধা অতিক্রম করতে সক্ষম হয়। 

অন্যদিকে পঞ্জাবে বিক্ষোভকারী কৃষকদের কারণে স্থানীয় বিজেপি নেতাকে একটি হোটেলের পিছনের দরজা দিয়ে বাইরে যেতে হয়। স্থানীয় একটি হোটেলে বিজেপি নেতার উপস্থিতিতে পালন করা হচ্ছিল প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ীর জন্মদিন। সেই সময় ওই হোটেলে চড়াও হয় আন্দোলনকারীরা। বিজেপির মহিলা মোর্চার নেত্রী ও সদস্যদের হোটেলের প্রবেশ করতে বাধা দিয়েছেলষ কৃষকদের আন্দোলনের কারণে হোটেল থেকে পুলিশি নিরাপত্তায় বিজেপি নেতাকে পিছনের দরজা নিয়ে বাইরে বার করে আনা হয়। 

মানুষকে বিভ্রান্ত করার জন্যই ভুল প্রচার, প্রধানমন্ত্রীর সমালোচনার পাল্টা জবাব মুথ্যমন্ত্রীর .

BJP-র প্রচারে বড় ভূমিকা সনিয়া গান্ধীর, জেপি নাড্ডাও পোস্ট করলেন কংগ্রেস নেত্রীর ভিডিও

অন্যদিনে এদিনও দিল্লির উপকণ্ঠে চলছে কৃষক আন্দোলন। প্রবল শীত উপেক্ষা করে চলছে কৃষক বিক্ষোভ। পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী এদিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর যখন কৃষকদের উদ্দেশ্য ভাষণ দিয়েছিলেন তখন আন্দোলনকারী কৃষকরা থালা বাজিয়ে প্রতীকী প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন। কেন্দ্রীয় কৃষি মন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমর এদিনও বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, আর যাঁরা কৃষকদের বিভ্রান্ত করছে আগামী দিনে কৃষকরা তাঁদের উচিৎ শিক্ষা দেবেন।