Asianet News Bangla

আটত্রিশ বছরে কুড়ি বার গর্ভবতী, ১১ সন্তানের মা ফের দিলেন সুখবর

  • আটত্রিশ বছরে কুড়ি বার গর্ভবতী
  • এখনও পর্যন্ত তিনি ১৬টি সন্তানের জন্ম দিয়েছেন
  • বর্তমানে তিনি ১১টি সন্তানের মা
  • এর মধ্যে তিনবার গর্ভপাতও করেছেন তিনি
In Maharashtra, mother of 16 expecting new baby in months pregnant for twentieth time
Author
Kolkata, First Published Sep 10, 2019, 5:35 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

৩৮ বছরের জীবনে ২০ বার গর্ভবতী হয়েছেন এক মহিলা। সোমবার মহারাষ্ট্রের চিকিৎসকরা  এমনই বিরল এক ঘটনার কথা জানিয়েছেন। মহারাষ্ট্রের বীড জেলায় বসবাসকারী এক মহিলা তাঁর জীবনে কুড়ি বার গর্ভবতী হয়েছেন। তার মধ্যে তিনবার গর্ভপাত করালেও এখনও পর্যন্ত তিনি ১৬টি সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। 

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন বর্তমানে তিনি সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা। আর কিছু দিনের মধ্যেই তাঁর আরও একটি সন্তান জন্ম নিতে চলেছে। বিষয়টি অবাক করা হলেও এটাই সত্যি। চিকিৎসকরা আরও জানান যেত, প্রতিবারই যখন তিনি  একটি করে সন্তান প্রসব করেন তার পর তাদের মধ্যে বেশিরভাগই জন্মের কয়েক ঘণ্টা বা কিছু দিন পর মারা যায় তাঁর সন্তানরা। এখনও পর্যন্ত তাঁর ১১ টি সন্তান জীবিত রয়েছে। যে তিনটি গর্ভপাত তিনি করিয়েছেন তাঁর মধ্য সবকটিই হয়েছে তাঁর তিন মাসের গর্ভাবস্থায়ে। 

মহারাষ্ট্রের এই মহিলার যে পরিচয় পাওয়া গিয়েছে, তাতে তাঁর নাম লঙ্কাবাই খারাট। আদতে তিনি যাযাবর গোপাল গোষ্ঠীর সদস্যা। তাঁর ২০ বার মা হওয়ার খবর শুনে রীতিমতো তাজ্জব হয়ে যান স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রের চিকিৎসকরা। বর্তমানে তিনি ১১টি সন্তানের মা। 

'নমো' মন্ত্রেই মুগ্ধ নেটিজেনরা, সোশ্যাল মিডিয়ায় দিনে দিনে বাড়ছে মোদীর অনুগামীর সংখ্যা

ফের ভোলবদল ট্রাম্পের, কাশ্মীর ইস্যুতে মধ্যস্থতা করতে চাইলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট

মানুষকে ভয় দেখিয়ে সন্ত্রাসবাদী পোস্টার প্রকাশ, উপত্যকায় পুলিশের জালে ৮ লস্কর জঙ্গি

কাশ্মীর নিয়ে অশান্তির জের, জঙ্গি হামলা হতে পারে দক্ষিণ ভারতেও, প্রস্তুত সেনাবাহিনী

তাঁর পুনরায় গর্ভবতী হওয়ার সম্ভাবনা থেকেই তাঁকে প্রয়োজনীয় কয়েকটি স্বাস্থ্য পরীক্ষার কথা বলেন চিকিৎসকরা। স্বাস্থ্য পরীক্ষার পর মা এবং সন্তান দুজনেই সুস্থ রয়েছেন বলে জানান চিকিৎসকরা। চিকিৎসকরা আরও জানান যে, এর আগে তাঁর সমস্ত ডেলিভারিই বাড়িতে করা হয়েছে। স্বাস্থ্যের ঝুঁকি এড়াতেই এবার তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি হয়ে সেখানেই প্রয়োজনীয় চিকিৎসা লাভের পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। তাই এবার এই প্রথম হাসপাতালে গিয়ে ডেলিভারি হবে তাঁর।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios