চিনা সেনাকে জবাব দিতে রীতিমত প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে ভারত। লাদাখে মোতায়ের করা হয়েছে স্পেশাল প্যারা ফোর্স। ভারতের সেনা বাহিনী এই বিশেষ সদস্যরা হাই অল্টিটিউডে যুদ্ধে বিশেষ পারদর্শী। পাকিস্তানে জঙ্গি শিবির ধ্বংশেও এই বাহিনীর বিশেষ কৃতিত্ব রয়েছে। 

লাদাখ সীমান্ত উত্তাপের আঁচ পড়তে পারে সমুদ্রেও, চিনের গতিবিধির ওপর নজর রাখতে ভারতীয় নৌবাহিনীর কৌশল ...

সেনা সূত্রের খবর দেশের বিভিন্ন এলাকায় থেকে বিশেষ বাহিনীর সদস্যদে ইতিমধ্যেই লাধাখে পাঠান হয়েছে। সেখানে তারা অনুশীলনও শুরু করে দিয়েছে। প্রয়োজনে চিনা সেনার বিরুদ্ধে খুব অল্প সময়ের  নোটিশে এই বিশেষ বাহিনীর জওয়ানদের কাজে লাগান হতে পারে বলেও ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে সেনা সূত্রে। 

রাশিয়া থেকে ৩৩টি যুদ্ধ বিমান কেনার ছাড়পত্র , চিনকে কড়া জবাব দিতে আত্মনির্ভর ভারতই হাতিয়ার রাজনাথের...

ভারতীয় সেনা বাহিনীর এই স্পেশাল প্যারা ফোর্স ১২টি রেজিমেন্টে সজ্জিত। এই বাহিনীর সদস্যরা যেকোনও প্রকৃতিক পরিবেশে লড়াই করতে সক্ষম। দুর্গম পাহাড়, মরুভূমি আর গভীর অরণ্যেভূমিতে এরা অপরাজেয়। বিশেষ এই কমান্ডো বাহিনী লে-তে পৌঁছেয়ই মহড়া শুরু করে দিয়েছে।

টাইগার আভি জিন্দা হ্যায়, কংগ্রেসকে তীব্র কটাক্ষ করে বললেন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া ... 

১৯৬৬ সালের ১ জুলাই স্পেশাল প্যারা ফোর্সের জন্ম। ৫৪ বছরের ইতিহাসে সাফল্যের তালিকা রীতিমত লম্বা। ৭১-এর ভারত পাক যুদ্ধ থেকে শুরু করে ৮৪ সালে আপারেশন ব্লুস্টার, ৮৭ সালে শ্রীলঙ্কা আর  ৮৮ সালে মালদ্বীভে সাাফল্য এসেছিল বিশেষ বাহিনীর হাত ধরেই। পাকিস্তানে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকেও এই বাহিনীর বিশেষ ভূমিকা ছিল। ভারতীয় সেনা বাহিনী থেকে বিশেষভাবে বাছাই করা সদস্যদের বিশেষ প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। সেই প্রশিক্ষণে উত্তীর্ণ হতে পারলেই তবেই বিশেষ বাহিনীর অন্তর্ভূক্ত হতে পারেন জওয়ানরা।