অবশেষে দেশে ফিরলেন ইরান ও ইতালিতে আটকে পড়া প্রায় সাড়ে চারশো জন ভারতীয়। রবিবার করোনা সংক্রমিত ইরান থেকে ভারতে আনা হয়েছে ২২০ জনকে। যাঁদের মধ্যে পড়ুয়ার সংখ্যা ২১১। ইউরোপীয় দেশগুলির মধ্যে করোনাভাইরাসের ব্যাপক প্রভাব পড়েছে ইতালিতে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় কার্যত জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। এই অবস্থায় ভারতীয়দের দেশে ফেরানো কিছুটা হলেও কঠিন ছিল। কিন্তু তৎপরতার সঙ্গেই পড়ুয়াসহ ইতালিতে আটকে পড়া ভারতীয়দের ফেরানো হল দেশে। এয়ার ইন্ডিয়ার একটি বিশেষ বিমান ইতালির মিলানে যায়। সেখান থেকেই উদ্ধার করে আনে ভারতীয়দের। উদ্ধার হওয়া ভারতীয়রা ধন্যবাদ জানিয়েছেন এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষ, ইতালিতে অবস্থিত ভারতীয় দূতাবাসের কর্মী ও ইতালির প্রশাসনকে। আগেই এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষ ঘোষণা করেছিল ইতালি ও কুয়েতগামী সমস্ত বিমান আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত বাতিল করা হচ্ছে। কিন্তু ইতালিতে আচকে পড়া ভারতীয়দের উদ্ধারের জন্যই বিশেষ বিমান রওনা দেয়। উদ্ধার করে আনে ভারতীয়দের। 

ইতালি থেকে দেশে ফিরতে পেরে খুশি ভারতীয়রা। কারণ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার রিপোর্ট অনুযায়ী শুধু ইতালিতে করোনার জীবানুতে আক্রান্ত হয়ে মৃতের  সংখ্যা এক হাজার চারশো এগারো।  শনিবারই মৃত্যু হয়েছে ১৭৫ জনের। ইতালিতে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে প্রায় বিদেশগামী সমস্ত উড়ান পরিষেবা। প্রায়  শুনশান বিমানবন্দর, রেলস্টেশন। খুব প্রয়োজন ছাড়া কেউই বাড়ির বাইরে বার হচ্ছেন না। 

আরও পড়ুনঃ কাউন্টডাউন শুরু, সোমবার কঠিন পরীক্ষার মুখে দাঁড়িয়ে কমল নাথ চিঠি লিখলেন অমিত শাহকে

আরও পড়ুনঃ করোনা সংক্রমণ রুখতে বিকেলে সার্ক নেতৃত্বের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স প্রধানমন্ত্রীর

অন্যদিকে  রবিবার সকালেই করোনা আক্রান্ত ইরান থেকে দেশে ফিরেছেন ২৩৪ জন তীর্থযাত্রী। তাঁদেরও উদ্ধার করে দেশে ফেরত আনতে ভরসা রাখা হয়েছে সেই এয়ার ইন্ডিয়ার বিমানের ওপরই। দুটি বিশেষ বিমানে তাঁদের ইরান থেকেই সরাসরি নিয়ে যাওয়া হয়েছে রাজস্থানের জয়সালমিরের সেনা কোয়ারেন্টাইনে। প্রাথমিক পর্যায়ের চিকিৎসা ও পর্যবেক্ষণে রাখা হবে তাঁদের। কারণ ইরানেও করোনাভাইরাস ভয়াবহ আকার নিয়েছে। আক্রান্ত ও মৃত্যুর তালিকায় চিনের পরেই রয়েছে ইরানের স্থান। ইরান থেকে ফেরা ভারতীয়দের মধ্যে ১৩১ জন পড়ুয়া রয়েছেন। তীর্থযাত্রীর সংখ্যা ১০৩। ইরানে ভারতীয় দূতাবাস ও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের ধন্যবাদ জানিয়েছে ট্যুইট করেছেন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। 

করোনা মোকাবিলায় রীতিমত কড়া পদক্ষেপ নিয়েছে ভারত সরকার। ১৩ মার্চ থেকে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত সমস্ত ভিসা বাতিল করা হয়েছে। ইতিমধ্যে ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা একশো ছুঁয়েছে। মৃতের সংখ্যা তিন। গোটা বিশ্ব জুড়েই করোনার ভয়াবহ প্রকোপ পড়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা দেড় লক্ষের কাছাকাছি। ভয়ঙ্কর এই জীবানু প্রাণ নিয়েছে ৫০০০ মানুষের। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আন্তর্জাতিক মহামারি হিসেবে চিহ্নিত করেছে করোনাভাইরাসের সংক্রমণকে।