মঙ্গলবারই ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের সাংসদদের প্রতিনিধি দল কাশ্মীর উপত্যকায় সফর করেছেন। তারপর মোটামুটিভাবে সকলেরই বক্তব্য সন্ত্রাসের কারণেই অশান্ত হয়েছে কাশ্মীর। কাশ্মীরে এখনও সবটা ঠিক নেই তা মেনে নিয়েই তাঁরা আশা প্রকাশ করলেন মোদী সরকার সময়ের সঙ্গে তা ঠিক করে দেবেন। তবে ভারতীয় রাজনীতিকদের প্রতিনিধি দলকেও কাশ্মীর সফরে যেতে দেওয়ার অনুমতির দাবি তুললেন তাঁরা।

আরও পড়ুন - মোদীর সঙ্গে দেখা করিয়ে বিদেশি সাংসদদের কাশ্মীর ঘোরালেন, কে এই রহস্যময়ী

ইউরোপিয় প্রতিনিধিদের বেশিরভাগই অবশ্য কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বাতিলের সমর্থনই করেছেন। ব্রিটিশ ব্রেক্সিট পার্টির সদস্য নাথান গিল, ব্রিটিশ কনজারভেটিভ পার্টির সদস্য জেমস হিপে, ফ্রান্স ন্যাশনাল ব়্যালির থিয়েরি মারিয়ানি, অলটারনেটিভ ফর জার্মানি দলের নিকোলাস ফাউস্ট প্রত্যেকেই জানিয়েছেন, স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে তাঁদের মনে হয়েছে, বিশেষ মর্যাদা বাতিল করাটাকে তাঁরা ভালভাবেই নিয়েছেন। তাঁরা স্বাভাবিকভাবে জীবনযাপন করতে চান।

আরও পড়ুন - স্বাধীনতায় আঘাত, সরাসরি মোদী সরকারকেই নিশানা, বিজেপির অস্বস্তি আরও বাড়াল শিবসেনা

তবে সন্ত্রাসবাদের সমস্যা এখনও থেকেই গিয়েছে। তাঁদের জন্য যে পরিমাণ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছিল, তাতেই ইউরোপিয় প্রতিনিধিরা জানিয়েছেন সবটা যে ঠিক নেই, তা স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে। তবে তাঁরা আশাবাদী ভারত সরকারই যে সমস্যাগুলি থেকে গিয়েছে, তা সমাধান করে ফেলবেন।   

অলটারনেটিভ ফর জার্মানি দলের সাংসদ নিকোলাস ফাউস্টের মত, মোদী সরকারের উচিত ভারতের রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিদেরও কাশ্মীর সফরে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া। ইউরোপিয় প্রতিনিধিদের বেলায় সম্মতি দেওয়া হচ্ছে, অথচ ভারতীয়দের বেলায় সটান না বলে দেওয়া হচ্ছে, এই নিয়ে মোদী সরকারে তীব্র সমালোচনা করেছে ভারতের বিরোধী দলগুলি। ফাউস্ট জানিয়েছেন, এতে সরকারের সিদ্ধান্তের ভারসাম্য থাকছে না।

আরও পড়ুন - বিদেশি কূটনীতিকদের কাশ্মীর পরিদর্শন নিয়ে তীব্র কটাক্ষ মেহবুবা মুফতির, কী বললেন তিনি