আন্তর্জাতিক উড়ান পরিষেবা পুনরায় চালু করার চেষ্টা চলছে। শুক্রবার থেকেই একাধিক দেশের উদ্দেশে ভারত থেকে রওনা দিতে পারে আন্তর্জাতিক সংস্থার বিমান।  বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠক করে একথাই জানালেন কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরী।

তবে কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রী বলেন এখন তা শুধুমাত্র আমেরিকা ও ফ্রান্সের সঙ্গেই হবে। এই বিষয়ে দুই দেশের সঙ্গে বিশেষ চুক্তি করেছে ভারত। ফলে পারস্পরিত সম্মতির ভিত্তিতেই এই বিমান পরিসেবা শুরু হচ্ছে। জার্মানি, বিট্রিশ যুক্তরাজ্য ও সংযুক্ত আরব আমিরশাহির সঙ্গেও এই নিয়ে চলছে আলোচনা।

আরও পড়ুন: সেপ্টেম্বরের শুরুতেই দেশে করোনা আক্রান্ত হবেন ৩৫ লক্ষ, নভেম্বরের আগেই কোটি ছাড়াবে সংখ্যাটা 

বৃহস্পতিবার অসামরিক বিমান পরিবহণমন্ত্রী হরদীপ সিং পুরী সাংবাদিকদের কাছে বলেন, “আমেরিকা, ব্রিটেন, ফ্রান্স এবং আরব আমিরশাহির সঙ্গে এ ব্যাপারে একটি চুক্তি সম্পূর্ণ হয়েছে। জার্মানির সঙ্গেও সমঝোতার বিষয়টি চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। এ ছাড়া আন্তর্জাতিক উড়ান পরিষেবা চালু করতে আগ্রহী আরও বেশ কয়েকটি দেশের সঙ্গে আলোচনা চলছে। আমরা স্বাভাবিক ভাবে আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা পুনরায় শুরু না হওয়া পর্যন্ত সীমিত সংখ্যক সংস্থাকে বিমান চালানোর অনুমতি দিচ্ছি”।

আরও পড়ুন: করোনা বিশ্বে আমেরিকা নয় বিল গেটসের ঘোড়া ভারত, ভ্যাকসিন নিয়ে আস্থা এদেশের ফার্মা কোম্পানিগুলির উপর

তিনি একই সঙ্গে বলেন, এই বিমানগুলির সময়তালিকাও পর্যালোচনা করা হবে এবং যখন প্রয়োজন হবে তখন পরিকল্পনায় প্রয়োজনীয় পরিবর্তন করা হবে। ভারত-সহ ওই দেশগুলিতে সংক্রমণ রুখতে যে বিধিনিষেধ রয়েছে তা মেনেই এই পরিষেবা দেওয়া হবে। তবে আন্তর্জাতিক বিমানচলাচল শুরু হলেও আগের মতো যাত্রী হবে না সেটাও জানিয়ে দেন পুরী। 

একনজরে দেখে নিন কোন সংস্থার বিমান কোথায় চলবে।

*ইউনাইটেড এয়ারলাইন্স এবং ডেল্টা বিমান চালাবে ভারত ও আমেরিকার মধ্যে। ১৭-৩১ জুলাই দুই দেশের মধ্যে ১৮টি বিমান চলবে।

*এয়ার ফ্রান্স চলাচল করবে ফ্রান্স-ভারতের মধ্যে। দিল্লি, মুম্বই, বেঙ্গালুরু এবং প্যারিসের মধ্যে যাতায়াত করবে সংস্থার ২৮টি বিমান। সময়সীমা ১৮ জুলাই থেকে ১ আগস্ট।

*আরব আমিরশাহিতে চলাচল করবে একাধিক সংস্থার বিমান।

*যুক্তরাজ্যের কোনো সংস্থা এখনও পর্যন্ত অনুমতি পায়নি। তবে লন্ডন-ভারত উড়ান পরিষেবা দেবে এয়ার ইন্ডিয়া।

*জার্মানির জন্য লুফথানসার  মনোনয়ন রয়েছে।

এর আগে আনলক ২-এ আন্তর্জাতিক উড়ান পরিষেবা চালুর কথা জানায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। তার পরেই ডিরেক্টরেট জেনারেল অব সিভিল অ্যাভিয়েশন  নির্ধারিত কয়েকটি দেশে আন্তর্জাতিক উড়ান পরিষেবা পুনরায় চালু করার অনুমোদন দেয়।

গত মার্চ মাসে করোনার কারণে দেশব্যাপী লকডাউন চালু হওয়ার পর থেকেই সমস্ত রকমের উড়ান পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়। এর পর বিদেশে আটকে পড়া ভারতীয়দের দেশে ফেরাতে ‘বন্দে ভারত মিশন’-এ বিশেষ বিমান চালায় এয়ার ইন্ডিয়া। তার পর কোভিড-১৯ সুরক্ষাবিধি মেনে ঘরোয়া উড়ান পরিষেবা চালু হয় গত ২৫ মে থেকে। আনলক শুরু হওয়ার পর  ডিজিসিএ ঘোষণা করে, ভারতে আন্তর্জাতিক উড়ান পরিষেবা ১৫ জুলাই পর্যন্ত স্থগিত থাকবে। তবে এই নিষেধাজ্ঞা আন্তর্জাতিক কার্গো অপারেশন এবং বিশেষ বিমানের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে না। তবে ১৫ জুলাইয়ের পরদিনই ফের আন্তর্জাতিক উড়ান পরিষেবা শুরুর সিদ্ধান্তের কথা
 ঘোষণা করল কেন্দ্র।