চলতি বছরের বন্যায় ব্যপক ক্ষয়ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে মধ্যপ্রদেশ। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ টাকার অঙ্কে প্রায় ১১,৯০৬ কোটি টাকা। মধ্যপ্রদেশ সরকারের একটি পরিদর্শনকারী দল কেন্দ্রকে বন্যাত্রাণ এবং পুনর্বাসনের জন্য তাৎক্ষণিক আর্থিক সাহায্যের দাবি করা হয়েছে। 

জরুরিকালীন অবস্থায় এই ১১,৯০৬ কোটি টাকা দাবি করা হয়েছে কেন্দ্রের কাছে, জানা গিয়েছে কেন্দ্র এই পরিমাণ অর্থ প্রদান করলে তা দিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা এবং মানুষরা এই অর্থের দ্বারা যথেষ্ট উপকৃত হবেন। সেইসঙ্গে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাও পুনর্গঠনের কাজ শুরু করা হবে বলে জানা গিয়েছে। 

ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে প্রবল বন্যার জেরে এখনও পর্যন্ত প্রায় ২২৫ জনের প্রাণহানির খবর পাওয়া গিয়েছে। এদিন রাজ্যসরকারের তরফে কেন্দ্রীয় দলের সঙ্গে বৈঠক করে জানিয়েছেন যে, রাজ্যের ৫২টি জেলার মধ্যে ৩৬টি জেলাতেই বন্যার জেরে বেশ বড় রকমেকর ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। কেন্দ্রের পাঁচ সদস্যের একটি দলকে জানানো হয়েছে, গত ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১২০৩.৫ মিলিমিটার পর্যন্ত বৃষ্টি হয়েছে, যা স্বাভাবিকের থেকে ৩৭ শতাংশ বেশি। 

আরও পড়ুন- ৩৭০ ধারা বাতিলের পর ৪০০০ সন্দেহভাজনকে গ্রেফতার, মুক্তি পেল প্রায় ৩,১০০

আরও পড়ুন- 'উইন্টার ইজ কামিং', ইসরোর সামনে ল্যান্ডার বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগের শেষ সুযোগ

আরও পড়ুন- সমস্ত জল্পনার অবসান, ধর্ষণের অভিযোগে অবশেষে গ্রেফতার প্রাক্তন বিজেপি সাংসদ চিন্ময়ানন্দ

আরও পড়ুন-প্রথমে ইমরান, পরে নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠকে বসবেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প

সরকারি হিসাব বলছে, প্রবল বৃষ্টিপাতের ফলে প্রায় ২৪ লক্ষ হেক্টর জমির শস্য, যার মূল্য প্রায় ৯,৬০০ কোটি টাকার শস্য নষ্ট হয়েছে। আর এর জেরে প্রায় ২২ লক্ষ চাষী ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। বন্যার কারণে রাস্তাঘাট ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার কারণে আরও প্রায় পনের হাজার কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।