তিন তালাক দিয়ে গ্রেফতার হলেন কেরলের কোঝিকোড়ের বাসিন্দা এক ব্যক্তি। তেতাল্লিশ বছর বয়সি ওই ব্যক্তি কোঝিকোড়ের মুক্কম গ্রামের বাসিন্দা। শুক্রবারই তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। তিন তালাককে নিষিদ্ধ ঘোষণা করে নতুন আই পাশ হওয়ার পরে এটাই কেরলে প্রথম গ্রেফতার বলেই দাবি করা হচ্ছে। 

আরও পড়ুন- স্বাধীনতা দিবসেই হচ্ছে সাক্ষাত! নরেন্দ্র মোদীকে অভিনব উপহার দিচ্ছেন ইশরাত

আরও পড়ুন- তিন তালাকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করায় নাক কাটা হল গৃহবধুর, কাঠগড়ায় শ্বশুরবাড়ির লোক

একটি সর্বভারতীয় ইংরেজি দৈনিকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ধৃতের নাম ই কে উসাম। তাঁর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে থামারাসসেরির একটি আদালত। স্বামী তিন তালাক দেওয়ার পরে অভিযুক্তের স্ত্রী দুই আইনজীবীর সাহায্যের আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। 

পুলিশ জানিয়েছে, তিন তালাক বিরোধী আইনের তিন এবং চার নম্বর উপধারা অনুযায়ীই অভিযুক্তের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করা হয়েছে। যেখানে স্পষ্ট বলা আছে, মৌখিক, লিখিত, কোনও বৈদ্যুতিন মাধ্যম বা অন্য কোনও উপায়ে কোনওভাবেই তালাক দিলে তা বেআইনি গণ্য করা হবে এবং তা স্বীকৃতি পাবে না। অন্যদিকে এ ভাবে তালাক দিলে অভিযুক্তের তিন বছরের পর্যন্ত জেল এবং আর্থিক জরিমানা করারও বিধান রয়েছে নয়া আইনে।