বিশ্বের সেরা প্রথম ৩০০টি ইন্সটিটিউটে নাম নেই ভারতের কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের। টাইমস হায়ার এডুকেশন ২০২০ সালের ক্রমতালিকায় নেই কোনও ভারতীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম। গত বছর সারা দেশের মধ্যে এই ক্রমতালিকায় স্থান পেয়েছিল কেবল ইন্ডিয়ান ইন্সটিটিউট অব সায়েন্স বেঙ্গালুরু। তবে এবছর ভারতের একটি ইন্সটিউটের নামও রইল না এই তালিকায়। 

এই প্রসঙ্গে টাইমস হায়ার এডুকেশনের তরফে জানানো হয়েছে,  ২০১২ সালের পর থেকে এই প্রথম বিশ্বের সেপা ৩০০টি শিক্ষা রপ্রতিষ্ঠানের ক্রমতালিকায় নাম নেই ভারতের কোনও প্রতিষ্ঠানের। তবুও সেবার ইন্ডিয়ান ইন্সটিটিউট অব টেকনলজি বম্বে এই তালিকায় স্থান করে নিতে পেরেছিল। 

শুধু তাই নয় আগের বছর সেরা ৩০০-র তালিকায় থাকা ইন্ডিয়ান ইন্সটিটিউট অব সায়েন্স বেঙ্গালুরু এবার পিছিয়ে গিয়ে ৩৫০-র তালিকায় পৌঁছেছে। পাশাপাশি আইআইটি- রোপার ও আইআইটি-ইন্দোর চলে গিয়েছে ৩৫১ থেকে ৪০০-র তালিকায়। প্রসঙ্গত আইআইটি রোপার এবং ইন্দোর কিন্তু দেশের অন্যতম প্রাচীন প্রতিষ্ঠান মুম্বই-দিল্লির আইআইটি গুলির তুলনায় অনেকটাই ভাল ফল করেছে। আইআইটি রোপার এবং ইন্দোর কিন্তু তার যাত্রাপথ শুরু করেছে ২০০৮-'০৯ সালে। রিসার্চ সাইটেশন প্যারামিটারের ভিত্তিতে এই দুটি প্রতিষ্ঠানের অভাবনীয় উন্নতি সম্ভব হয়েছে। 

এই প্রসঙ্গে এই ক্রমতালিকার সম্পাদক এলি বথওয়েল জানিয়েছেন,ক্রমবর্ধমান নবপ্রজন্মের সংখ্যা, ক্রমবর্ধমান অর্থনীতির ওপর ভর করে  বিশ্বব্যাপী উচ্চতর শিক্ষার ক্ষেত্রে ভারত একটি অত্যন্ত সম্ভাবনা রয়েছে। কিন্তু তা সত্ত্বেও বিশ্বের সেরা ৩০০টি প্রতিষ্ঠানে ভারতের নাম না থাকাটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক। বিশেষজ্ঞদের কথায়, গবেষণার জন্য প্রয়োজনীয় পরিকাঠামোর অভাব, শিক্ষাদানের উপযুক্ত পরিবেশ না থাকাই এর অন্যতম কারণ। 

অর্থনীতি নিয়ে উদ্বিগ্ন, তিহার জেল থেকেই টুইট করে জানালেন পি চিদম্বরম

আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবতের গাড়ির সঙ্গে ধাক্কা, প্রাণ গেল ছয় বছরের শিশুর

পক্ষীকূল বাঁচাতে অভিনব উদ্যোগ,অপ্রয়োজনীয় জিনিস দিয়ে কৃত্রিম পাখির বাসা বানিয়ে তাক লাগালেন ব্য়ক্তি

এনআরসি তালিকায় নেই অসংখ্য মানুষের নাম, প্রতিবাদে আজ অসমে পালিত হচ্ছে ১২ ঘণ্টার বনধ

তবে সেরা ৩০০-র তালিকায় ভারতীয় কোনও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম না থাকলেও চলতি বছরের সমীক্ষায় বেশ কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম উঠে এসেছে যাদের নাম আগে শোনা যায়নি। প্রথমের দিকে না থাকলেও ৫০১-৬০০র মধ্যে স্থান করে নিয়েছে মুম্বইয়ে ইন্সটিটিউট অব কেমিকেল টেকনলজি এবং আইআইটি গান্ধীনগর। পাশাপাশি এই প্রথমবার ৬০১-৮০০-র তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে দিল্লির জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়।