থার্ড ফ্রন্ট নয়, বিরোধীদের মেন ফ্রন্ট ২৪য়ের লোকসভা ভোটে বিজেপিকে হারাবে, ঘোষণা নীতিশের

| Sep 26 2022, 11:34 AM IST

থার্ড ফ্রন্ট নয়, বিরোধীদের মেন ফ্রন্ট ২৪য়ের লোকসভা ভোটে বিজেপিকে হারাবে, ঘোষণা নীতিশের

সংক্ষিপ্ত

প্রাক্তন উপ-প্রধানমন্ত্রী দেবী লালের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে নীতীশ কুমার বলেন, "যদি সমস্ত অ-বিজেপি দল একত্রিত হয়, যার মধ্যে অবশ্যই কংগ্রেস থেকে আমাদের বন্ধুদের অন্তর্ভুক্ত করা উচিত, তাহলে আমরা যারা দেশকে ধ্বংস করার জন্য কাজ করছে তাদের থেকে মুক্তি পেতে পারি।"

২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের আগে ভারতীয় জনতা পার্টি বা বিজেপির বিরোধিতা করতে এককাট্টা নীতিশ কুমার। একটি ঐক্যবদ্ধ বিরোধী ফ্রন্ট গঠনের চেষ্টায়, বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার, জাতীয়তাবাদী কংগ্রেস পার্টি (এনসিপি) প্রধান শরদ পাওয়ার এবং অন্যান্য বিশিষ্ট বিরোধী নেতারা রবিবার হরিয়ানার ফতেহাবাদে ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল লোকদল (আইএনএলডি) আয়োজিত একটি মেগা সমাবেশে যোগ দিয়েছিলেন। সমাবেশে, এই বিরোধী দলগুলি একযোগে গেরুয়া শিবিরকে আক্রমণ করে। নীতিশ কুমারের দাবি রাজনৈতিকভাবে লাভবান হওয়ার জন্য, মিথ্যা দাবি ও প্রতিশ্রুতি দেওয়ার জন্য "হিন্দু-মুসলিম বিশৃঙ্খলা" তৈরি করার চেষ্টা করে চলেছে বিজেপি। 

প্রাক্তন উপ-প্রধানমন্ত্রী দেবী লালের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে নীতীশ কুমার বলেন, "যদি সমস্ত অ-বিজেপি দল একত্রিত হয়, যার মধ্যে অবশ্যই কংগ্রেস থেকে আমাদের বন্ধুদের অন্তর্ভুক্ত করা উচিত, তাহলে আমরা যারা দেশকে ধ্বংস করার জন্য কাজ করছে তাদের থেকে মুক্তি পেতে পারি।"

Subscribe to get breaking news alerts

নীতীশ কুমারের জেডি(ইউ) গত মাসে বিজেপির সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করেছে। এদিন নীতিশ বলেন যে "তৃতীয় ফ্রন্টের কোন প্রশ্নই নেই, কারণ ২০২৪ সালের সাধারণ নির্বাচনে বিজেপিকে পরাজিত করার জন্য একটি প্রধান ফ্রন্ট তৈরি করা হবে। তিনি মঞ্চে থাকা নেতাদেরকেও আহ্বান জানান, যার মধ্যে কিছু দলের আবার কংগ্রেস বিরোধী ইতিহাসও রয়েছে। নীতিশ বলেন একটি বৃহত্তর ঐক্যের জন্য কাজ করতে হবে সবদলকেই। তাঁর দাবি এই "বিরোধীদের প্রধান ফ্রন্ট" নিশ্চিত করবে যে বিজেপি ২০২৪ সালের নির্বাচনে খারাপভাবে হারবে।

জেডি(ইউ) সুপ্রিমো যোগ করেন, ১৯৪৭ সালে দেশভাগের পর বিপুল সংখ্যক মুসলমান ভারতে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। নীতীশ ছাড়াও তাঁর দলের কেসি ত্যাগী, ভারতের কমিউনিস্ট পার্টির (মার্কসবাদী) সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি, শিবসেনার অরবিন্দ সাওয়ান্ত, বিহারের উপমুখ্যমন্ত্রী, রাষ্ট্রীয় জনতা দলের (আরজেডি) নেতা তেজস্বী যাদব, আইএনএলডি সভাপতি ওপি চৌতালা এবং শিরোমণি আকালি দলের সুখবীর সিং বাদলরা ছিলেন। 

এই সমাবেশের প্রতিক্রিয়ায় কড়া বার্তা দেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। কেরালার কোট্টায়ামে বিজেপির জেলা অফিসের উদ্বোধনের সময় তিনি বলেন বিরোধী দলগুলি দুর্নীতিগ্রস্ত ও পরিবারকেন্দ্রিক। তিনি বলেন হরিয়ানায়, বিরোধী নেতাদের একটি সভা হয়। তারা সবাই দেবী লালের জন্মবার্ষিকী উদযাপন করতে একত্রিত হন। কিন্তু এদের সবার মধ্যে দুটি জিনিস সাধারণ। এক, তারা সকলেই পারিবারিক দল এবং দুই, সবাই দুর্নীতিতে সম্পূর্ণ ডুবে রয়েছে। তাদের মধ্যে কেউ কেউ জামিনে মুক্ত এবং অন্যরা মামলায় অভিযুক্ত।” 

'সবুজ উন্নয়ন আর সবুজের চাকরি বাড়ানোই লক্ষ্য', পরিবেশমন্ত্রীদের বৈঠকে বললেন প্রধানমন্ত্রী মোদী

'ভারতীয়দের হিংসায় ভয় দেখানো যাবে না', PFIএর বনধ নিয়ে কড়া বার্তা কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর

NIA-র তল্লাশি অভিযান কলকাতার পার্ক সার্কাসে, দেশবিরোধী কার্যকলাপের অভিযোগ শেখ মোক্তারের বিরুদ্ধে

Read more Articles on
,,