পূর্ব লাদাখের প্যাংগঙ লেকের কাছে সম্মুখ সমরে নামে ভারত ও চিনের সেনাবাহিনীরা। যার জেরে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে সীমান্ত। অবশেষে প্রতিনিধি পর্যায়ে বৈঠকের পরই বিষয়টি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসা হয়ছে বলে জানা গিয়েছে। 

একটি সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুসারে, বুধবার সকালে প্যাংগঙ লেকের উত্তরের তীরে টহলদারি চালাচ্ছিল ভারতীয় সেনারা। সেইসময়ে তাদের পথ রুখে দাঁড়ায় চিনা সেনারা। কারণ এই লেকটি তিব্বত থেকে লাদাখ পর্যন্ত এসেছে। প্রসঙ্গত, তিব্বত থেকে লাদাখ পর্যন্ত বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে থাকা লেকটির দুই-তৃতীয়াংশ রয়েছে চিনের অধীনে। আর সেই এলাকা টহল দেওয়ার সময়েই দুই সেনার মধ্যে একটা উত্তেজনার আবহ তৈরিহয়। 

সূত্রের খবর, টহল দেওয়ার সময়েই চিনের পিপলস লিবারেশন আর্মির বাধা দিতে গেলে তাঁদের সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে ভারতীয় সেনারা। এলাকাটি চিনের বলে দাবি করে দুই সেনার মধ্যে শুরু হয়ে যায় উত্তেজনা। বুধবার সন্ধে পর্যন্ত সেখানে উত্তেজনার আবহ বজায় ছিল বলে খবর। সেনাবাহিনী সূত্রে খবর সীমান্তের সেনাদের বৈঠকের পরে বিষয়টির সমাধান হয় বলে খবর। সূত্র মারফত আরও জানা গিয়েছে যে, 'লাইন অব অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোল' নিয়ে অনেক সময়েই সীমান্তে অবস্থিত সেনাদের মধ্যে দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয়। এলএসি ঠিক কোথা দিয়ে গিয়েছে, তা অনেক সময়েই বুঝে উঠতে পারেন না তাঁরা। আর সেই থেকেই এই সমস্যার সৃষ্টি হয়। 

অর্থনীতি নিয়ে উদ্বিগ্ন, তিহার জেল থেকেই টুইট করে জানালেন পি চিদম্বরম

আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবতের গাড়ির সঙ্গে ধাক্কা, প্রাণ গেল ছয় বছরের শিশুর

পক্ষীকূল বাঁচাতে অভিনব উদ্যোগ,অপ্রয়োজনীয় জিনিস দিয়ে কৃত্রিম পাখির বাসা বানিয়ে তাক লাগালেন ব্য়ক্তি

এনআরসি তালিকায় নেই অসংখ্য মানুষের নাম, প্রতিবাদে আজ অসমে পালিত হচ্ছে ১২ ঘণ্টার বনধ

প্রসঙ্গত লাদাখের এই প্যাংগঙ লেকের প্রাকৃতিক শোভার কারণে প্রতি বছর বিপুল পরিমাণে পর্যটকদের আগমন ঘটে এখানে। তবে এই অঞ্চলে ভারত এবং চিন সেনার মধ্যেকার এই অশান্তি কি ন্তু প্রথম নয়।  এর আগেও এই অঞ্চলে দুই দেশের সেনাবাহিনীর একে অপরের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ার খবর প্রাকশ্যে এসেছিল। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া কিছু ভিডিওতে দুই দেশের সেনা একে অপরের সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ার খবরও প্রকাশ্যে এসেছিল।