Asianet News BanglaAsianet News Bangla

গৃহবন্দি করে রাখা হোক, তিহার জেলে নয়, সুপ্রিম কোর্টের কাছে আর্জি চিদম্বরমের

  • তিহার জেলে যেন না পাঠানো হয় চিদম্বরমকে
  • বয়সজনিত কারণে চিদম্বরমকে নিরাপত্তা দেওয়া উচিত
  • প্রয়োজনে তাঁকে গৃহবন্দি করে রাখা হোক
  • সুপ্রিম কোর্টের কাছে আর্জি চিদম্বরমের আইনজীবী কপিল সিব্বল-এর
P Chidambaram dodges Tihar Jail as Supreme Court extends CBI custody
Author
Kolkata, First Published Sep 2, 2019, 3:02 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী  পি চিদম্বরম সোমবার সুপ্রিম কোর্টের কাছে আবেদন জানান যে, তাঁকে যেন তিহার জেলে না পাঠানো হয়। বয়সজনিত কারণে চিদম্বরমকে নিরাপত্তা দেওয়া উচিত বলেও দাবি করা হয়। প্রসঙ্গত, চিদম্বরমের বয়স এখন ৭৪ বছর। 

প্রসঙ্গত, গত ২১ অগাস্টে এক চরম নাটকীয় পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে গ্রেফতার করা হয়েছিল। সেদিনের পর থেকে টানা ১১দিন তিনি কাটিয়েছেন সিবিআই হেফাজতে। এদিন তাঁর আইনজীবি কপিল সিব্বল জানিয়েছেন, চিদম্বরমকে গৃহবন্দি করে রাখা যেতে পারে। এদিন যুক্তিতর্কের শেষে আদালত বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এই বর্ষীয়ান এই কংগ্রেস নেতাকে সিবিআই হেফাজতের নির্দেশ দেন। এদিন কপিল সিব্বল আদালতের সামনে বলে যে, চিদম্বরমের জন্য অবশ্যই সুরক্ষা প্রদান করা উচিত। তাঁর বয়স এখন চুয়াত্তর। তাঁকে বরং গৃহবন্দি করে রাখা হোক, কিন্তু তিহার জেলে যেন না পাঠানো হয়। 

শিশুদের মিড ডে মিলে নুন-রুটি খাওয়ানোর খবর ভুয়ো, যোগী সরকারের বিরুদ্ধে চক্রান্তের অভিযোগ

 উচ্চতার নিরিখে রেকর্ড, হায়দরাবাদে তৈরি হল দেশের সবচেয়ে বড় গণেশ মূর্তি

গাড়ি শিল্পকে বাঁচাতে নতুন পদক্ষেপ কেন্দ্রের, কমানো হতে পারে জিএসটি

প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ, ২০০৭ সালে অর্থমন্ত্রী থাকাকালীন বিদেশ থেকে বিপুল অঙ্কের টাকা আইএনএক্স মিডিয়াকে পাইয়ে দেওয়ার ছাড়পত্র দিয়েছিলেন তিনি। এর বিনিময়য়ে তাঁর ছেলে কার্তি চিদম্বর কে মোটা টাকা ঘুষও দিয়েছিল আইএনএক্স মিডিয়ায়। জেরার মুখে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর নাম বলেছিলেন বিজনেস টাইকুন ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়। পাশাপাশি চিদম্বরমের গ্রেফতারিতে কার্যত খুশি হয়েছিলেন ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়। 

ব্যাঙ্ক সংযুক্তিকরণের ফলে কেউ চাকরি হারাবেন না, সাফ জানালেন নির্মলা সীতারমণ

সুপ্রিম কোর্টের তরফে জানানো হয় যে, দুর্নীতির অভিযোগে অভিযুক্ত সিবিআই-এর কাছে গ্রেফতার হওয়ার পর দেশের প্রাক্তন অর্থমন্ত্রীকে জামিনের জন্য বিশেষ আদালতে আবেদন করতে হবে। পাশাপাশি আদালত এও বলে গৃহবন্দি কেবল রাজনৈতিক ব্যক্তিদেরই বন্দি করে রাখা যেতে পারে। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios