মৃত্যু যে কার কখন কীভাবে আসে সেই কথা সত্যি কেউ বলতে পারে না। তবে সাম্প্রতিককালে এক নাগাড়ে মোবাইল ফোন-এ কথা বলাও যে কী ভয়ঙ্কর মারণ ফাঁদ হতে পারে তা আবারও প্রমাণিত হল এই ঘটনার পর। 

স্বামীর সঙ্গে মোবাইলে কথা বলতে বলতে মগ্ন হয়েছিলেন স্ত্রী। কিন্তু বিছানার ওপর যে রয়েছে বিষধর দুটি সাপ,তা খেয়ালই করেননি তিনি। আর তাই ভুলবশত সাপদুটির ওপর বসে পড়েন তিনি। কাজেই যা হওয়ার তাই হল। সাপের কামড়ে প্রাণ হারালেন সেই মহিলা। বুধবার ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরের নিয়ানভ নামে একটি গ্রামে। 

জানা গিয়েছে মৃতার নাম গীতা সিং। তাঁর স্বামী জয় সিং যাদব থাইল্যান্ডে কর্মরত। ঘটনার দিন রাতে স্বামীর সঙ্গেই কথা বলছিলেন তিনি। এরই ফাঁকে কখন যে দুটি সাপ তার ঘরে ঢুকে একেবারে বিছানার ওপর গিয়ে বয়েছে , তা কোনওভাবেই জানতে পারেননি তিনি, কারণ তাঁর বিছানার চাদরের রঙ এমনই ছিল, যাতে করে কোনওভাবেই বোঝার উপায় ছিল না যে বিছানায় সাপ থাকতে পারে। মোবাইলে কথা বলতে বলতে আচমকাই সাপের ওপরই বলে পড়েন গীতা দেবী। এরপর সাপের কামড়েই মুহূর্তের মধ্যেই  চেতন হয়ে পড়েন তিনি।

অর্থনীতি নিয়ে উদ্বিগ্ন, তিহার জেল থেকেই টুইট করে জানালেন পি চিদম্বরম

আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবতের গাড়ির সঙ্গে ধাক্কা, প্রাণ গেল ছয় বছরের শিশুর

পক্ষীকূল বাঁচাতে অভিনব উদ্যোগ,অপ্রয়োজনীয় জিনিস দিয়ে কৃত্রিম পাখির বাসা বানিয়ে তাক লাগালেন ব্য়ক্তি

এনআরসি তালিকায় নেই অসংখ্য মানুষের নাম, প্রতিবাদে আজ অসমে পালিত হচ্ছে ১২ ঘণ্টার বনধ

তাঁর পরিবারের লোকরা তাঁকে সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসা চলাকালীনই মৃত্যু হয় তাঁর। এরপর তাঁর পরিবারের লোকরা বাড়ি ফিরে দেখেন সাপদুটি তখনও বিছানায় রয়েছে। তারপর ক্ষিপ্ত প্রতিবেশীরা, সাপদুটিতে পিটিয়ে মেরে ফেলে। পরে ঘটনাস্থলটি পরিদর্শন করে একজন পশু চিকিৎসক জানান, সাপদুটির সঙ্গমকালে ওই মহিলা তাদের ওপর বসে পড়েছিল, আর তা থেকেই ঘটে গিয়েছে এই বিপত্তি।