সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে একটি ভিডিও। যেখানে দেখা যাচ্ছে জাপানের রাজপথে ঝরঝরে বাংলায় কথা বলে চলেছেন এক জাপানি তরুণী। ইতিমধ্যে ফেসবুকে ভিডিওটি দেখে ফেলেছেন চার লক্ষেরও বেশি মানুষ, শেয়ারের সংখ্যা এগারো হাজারেরও বেশি।

আরও পড়ুন: কুয়াশায় ঢাকা শহরে তাপমাত্রা বাড়ল ৪ ডিগ্রি, কাল থেকে বৃষ্টি কলকাতায়

ফেসবুকে এই ভিডিওটি আপলোড করেছিলেন অপূর্ব দাস নামে বেঙ্গালুরুতে কর্মরত এক ব্যক্তি। সম্প্রতি জাপানে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানেই তাঁর সঙ্গে দেখা হয়েছিল জাপানি তরুণী সাকুরা ইশিকাওয়ার। অপূর্ব সাকুরার সঙ্গে পরিচয় করে দেওয়ার পর ঝরঝরে  বাংলায় সকলকে নমস্কার জানান এই তরুণী।  সাকুরা জানান, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা পড়তেন তিনি। থাকতেন গোলপার্কে। শুধু বাংলা শেখার টানে রোজ গোলপার্ক থেকে যাদবপুর পর্যন্ত হেঁটে যাতায়াত করতেন। এখন অবশ্য টিসিএস জাপানে কর্মরত তিনি। তবে নিজের আগ্রহেই বাংলা শিখেছেন। বাংলা ছাড়াও আরেক ভারতীয় ভাষা হিন্দিও জানেন এই মেয়ে। তবে সাকুরার মতে, বাংলায় ভাবপ্রকাশের উপায় অনেক বেশি, তাই বাংলা অনেক ধনী ভাষা।

 

আরও পড়ুন: সিএএ নিয়ে মার্কিন মুলুকেও অস্বস্তিতে মোদী সরকার, এবার নিন্দা প্রস্তাব সিয়াটেল সিটি কাউন্সিলে

বাংলা ভাষার একাধিক সাহিত্যও পড়েছেন সাকুরা ইশিকাওয়া। ফেলুদার ছিন্নমস্তার অভিশাপ পড়া শেষ। রবীন্দ্রনাথের পোস্টমাস্টার পড়েছেন। অল্পবিস্তর কবিতাও তাঁর পড়া। দেখেছেন সত্যজিত রায়ের পথের পাঁচালি। বাংলা ভাষার মত বাঙালি খাবারও মন জিতেছে এই জাপানি কন্যার। ভাল লেগেছে সর্ষে ইলিশ, মোচার ঘন্ট আর রসগোল্লাও। 

 

যাঁরা বলেন, বাংলাটা ঠিক আসে না, বা যাঁরা বাংলার সঙ্গে অন্য ভাষা মিশিয়ে বলতে বেশি স্বচ্ছন্দ, তাঁদের মাথা হেঁট করে দিতে পারেন সাকুরা ইশিকাওয়া। বিদেশের মাটিতে জাপানি কন্যার বাংলায় এই আলাপচারিতা এখন মুগ্ধ নেট দুনিয়া।