২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর মাস থেকেই জ্বলছে অস্ট্রেলিয়া। দাবানলের প্রভাবে ধ্বংস হয়েছে কয়েক লক্ষ বন্য প্রান। সারা বিশ্ব সেভ অষ্ট্রেলিয়ার আর্তি জানিয়েছে। পুড়ে ছারখার হয়ে গিয়েছে বিস্তীর্ণ এলাকা। শেষ অবধি বিধ্বস্ত এই দেশে মিলল স্বস্তির বৃষ্টি। এই বৃষ্টি দেখে বেজায় খুশি অস্ট্রেলিয়াবাসীরা। তার মধ্যে থেকেই বছর দেড়েকের এক খুদে বৃষ্টি দেখে আনন্দে মাতোয়ারা। বৃষ্টিতে ভিজে কাদা মেখে নাচতে শুরু করে দিয়েছে। বর্তমানে বেশিরভাগ সোশ্যাল মিডিয়ার শেয়ার হয়ে একরত্তির এই নাচ আপাতত ভাইরাল নেট দুনিয়ায়।

আরও পড়ুন- লাগবে মাত্র ২৫ লাখ, রুশ সংস্থা দিচ্ছে মৃত্যুর পরও অমরত্বলাভের সন্ধান

 

 

ছোট্ট এই খুদের নাম সুনি ম্যাকেঞ্জি। নিউ সাউথ ওয়েলসে ম্যাকেঞ্জি পরিবারের একটি ফার্ম হাউসে রয়েছে সে। ঘরের ভিতর থেকে বৃষ্টি দেখে বাইরে বেরিয়ে আসে সুনি। তারপরেই বৃষ্টিতে ভিজে শুরু করে নাচ। বৃহস্পতিবার অস্ট্রেলিয়ার কিছু অংশে শুরু হয়েছিল বৃষ্টিপাত। টানা ৫ মাস ভয়াবহ আতঙ্কে কাটিয়েছেন বাসিন্দারা। এমন অবস্থায় ঘরছাড়া অসংখ্য মানুষ।  দাবানল বিধ্বস্ত অস্ট্রেলিয়ায় এই বৃষ্টি কতটা প্রয়োজনীয় তা বোধহয় বুঝতে পেরেছিল ছোট্ট সুনিও। তাই আচমকা বৃষ্টিতে মনের খুশিতে ভেসে গিয়েছে সে।

আরও পড়ুন- ধর্ষণের দিত ধর্মীয় ব্যাখ্যা, দেড়শো কেজির জঙ্গিকে জেলে নিয়ে যেতে লাগল ট্রাক

 

 

সুনির মা টিফানি ম্যাকেঞ্জি সুনির নাচের এই ভিডিও টি করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, বৃষ্টি শুরু হওয়ার পর বাইরে গাছগুলো বের করতে গিয়ে দেখি সুনি বাইরে বেরিয়ে এসেছে। এরপরেই নেমে আসে অঝোড়ে বৃষ্টি। সাউথ ওয়েলস-এ এমন বৃষ্টি বিগত দুএক বছরে হয়নি। তাই খুশির এই মুহূর্তে সুনির নাচের ভিডিওটি করে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন তিনি। জীবনে প্রথববার বৃষ্টি দেখে আনন্দে নেচে উঠেছে সুনি। তবে, আবহাওয়াবিদদের আশঙ্কা দাবানলের পরেই এই বৃষ্টি হতে পারে ভূমিধ্বস এভং জলদূষণের কারণ। বৃ্ষ্টি আপাতভাবে দেশবাসীকে স্বস্তি দিলেও চিন্তার ভাঁজ পরেছে আবহাওয়াবিদদের কপালে।