ইতালি দখল করতে চলেছে ডানপন্থী জোট, রাজনৈতিক পালাবদলের প্রভাব পড়বে সারা বিশ্বে?

| Sep 26 2022, 10:37 AM IST

ইতালি দখল করতে চলেছে ডানপন্থী জোট, রাজনৈতিক পালাবদলের প্রভাব পড়বে সারা বিশ্বে?

সংক্ষিপ্ত

ইউক্রেনে আক্রমণের পর রাশিয়ার ওপর জারি করা পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন জর্জিয়া মেলোনি। অন্যদিকে, তাঁর জোটসঙ্গী ইতালির প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী সিলভিয়ো বারলুসকোনির সঙ্গে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে। 

ইতালির নির্বাচনে ডানপন্থীদের রাজনৈতিক জোট নেত্রী জর্জিয়া মেলোনি বড় ব্যবধানে জয় পেতে চলেছেন। বুথ-ফেরত সমীক্ষা বলছে,  দেশের প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী হতে চলেছেন তিনি।  যদি বুথের জরিপে সঠিক হয়, তবে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর জর্জিয়া মেলোনিই প্রথম সবচেয়ে কট্টর ডানপন্থী সরকার গঠন করতে যাচ্ছেন বলে মনে করছে গোটা বিশ্ব।

ফলাফলের সমীক্ষা অনুযায়ী, তিনি ২২ থেকে ২৬ শতাংশ ভোটের ব্যবধানে জয়ী হবেন বলে ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়েছে। মেলোনি তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী এনরিকো লেত্তার চেয়ে এগিয়ে রয়েছেন। বিভিন্ন সমীক্ষায় জর্জিয়া মেলোনির নেতৃত্বাধীন কট্টর ডানপন্থী দল ব্রাদার্স অব ইতালি পার্টি এগিয়ে ছিল। দেশের বাকি দুই দল মাত্তেও সালভিনির লিগ ও সিলভিও বেরলুসকোনির ফোরজা ইতালিয়াকে নিয়ে সরকার গঠন করতে পারে জোটটি।

Subscribe to get breaking news alerts

রবিবার ইতালিতে সংসদ নির্বাচনে ভোর থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে চলে রাত প্রায় ১১টা পর্যন্ত। ৫ কোটিরও বেশি ভোটার ভোট দিয়েছেন। প্রেসিডেন্ট সার্জিও মাতারেল্লা সিসিলিয়ান রাজধানী পালেরমোতে সকালে ভোট দিয়েছেন। এবারের নির্বাচনে জর্জিয়া মেলোনির প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী মধ্য-বামপন্থী নেতা এনরিকো লেত্তা রোমে ভোট দিয়েছেন। আর মেলোনি ভোট দিয়েছেন মিলানে।

ইউক্রেনে আক্রমণের পর রাশিয়ার ওপর জারি করা পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন জর্জিয়া মেলোনি। তাঁর জোটসঙ্গী ইতালির প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী সিলভিয়ো বারলুসকোনির সঙ্গে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে। তিনি ফ্যাসিবাদীদের পুরোনো স্লোগানকে ধারণ করেন। এলজিবিটি লবির বিরুদ্ধে এবং অভিবাসীদের ঠেকাতে লিবিয়া ঘিরে নৌ অবরোধের আহ্বান জানিয়েছেন মেলোনি।

অগাস্টের শুরু পর্যন্ত ইতালির বাম ও মধ্যপন্থী দলগুলো মেলোনির নেতৃত্বাধীন ডানপন্থী জোটের কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বী হওয়ার আভাস দিয়েছিল। কিন্তু তারা কোনও সমঝোতায় পৌঁছাতে পারেনি। ফলে মেলোনির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে একা হয়ে পড়েন মধ্য-বামপন্থী ডেমোক্র্যাটিক পার্টির নেতা এনরিকো লেত্তা।

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলা আটকাতে বড়সড় চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ইউরোপ। ঠিক এই সময়ে রাশিয়ার সঙ্গে ঐতিহাসিকভাবে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রেখে চলা দলগুলোর সঙ্গে জোটের সম্ভাবনা রোম-মস্কোর ঘনিষ্ঠতা বাড়িয়ে তুলতে পারে বলে আশঙ্কা সারা বিশ্বে। 

আরও পড়ুন-
ভারতে যখন দেবীপক্ষ, ইরানে উড়ছে নারীদের চুলের ধ্বজা, ‘বরদাস্ত করব না’, হুঁশিয়ারি প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির
‘টিভি দেখছ?’ ফোনে জিজ্ঞেস করেছিলেন নরেন্দ্র মোদী, কীভাবে তিনি হয়ে উঠেছিলেন বিদেশমন্ত্রী জয়শঙ্করের প্রিয় মানুষ?
ফাইভ-জি ইন্টারনেট পরিষেবায় প্রভূত উন্নতি লাভ করবে ভারত, অক্টোবরেই আসতে চলেছে নরেন্দ্র মোদীর হাত ধরে

null