একদিন তৃতীয় বিশ্বের অনুন্নত দেশগুলিকে মহামারীতে মৃত্যু মিছিল দেখে এসেছে গোটা বিশ্ব। কিন্তু মারণ করোনা ভাইরাস গোটা পরিস্থিতি পাল্টে দিয়েছে। অনুন্নত দেশগুলির তুলনায় এই ভাইরাসের সবচেয়ে ভয়াবহতা দেখা যাচ্ছে ইউরোপ ও আমেরিকার আধুনিক দেশগুলিতে। বিশ্বে এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি মারণ ভাইরাসের সংক্রমণের শিকার হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। গোটা বিশ্বে যেখানে করোনা সংক্রমণের শিকার ২৭ লক্ষ মানুষ সেখানে শুধু  আমেরিকাতেই আক্রান্তের সংখ্যা ৯ লক্ষ ছুঁই ছুঁই। দেশটিতে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৮ লক্ষ ৮৬ হাজার ৭০৯। 

মৃত্যু মিছিলেও প্রতিদিনই রেকর্ড গড়ছে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী দেশ। ইতিমধ্যে আমেরিকায় মৃতের সংখ্যা ৫০ হাজার ছাড়িয়েছে। ইউরোপে করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত ইতালি, স্পেন, ফ্রান্স, ব্রিটেনের তুলনায় মৃতের সংখ্যায় অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছে আমেরিকা। তার মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনা সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৩১৭৬ জনের। কোনও দেশে একদিনে মৃতের সংখ্যায় এটাই এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি।

দিল্লিতে একসঙ্গে আক্রান্ত হাসপাতালের ১৪ জন চিকিৎসক , মহারাষ্ট্রে কোয়ারেন্টাইনে প্রায় ৮৩ শতাংশ

করোনার বিরুদ্ধে মোদীর যুদ্ধ ফের প্রশংসিত, এবার চিঠি লিখে কুর্নিশ জানালেন স্বয়ং বিল গেটস

ষড়যন্ত্র করে আমেরিকার উপর করোনা হামলা, অভিবাসন বন্ধ করে তোপ দাগলেন ট্রাম্প

এদিকে বুধবার করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে যুক্তরাষ্ট্রের আইনসভা কংগ্রেসে ৪৮ হাজার ৪০০ কোটি ডলারের নতুন আর্থিক সহায়তা বিল পাস হয়েছে। এনিয়ে চতুর্থবার কংগ্রেসে করোনা মহামারির বিরুদ্ধে আর্থিক বিল পাস হলো। বিলটি দ্রুত স্বাক্ষর করে আইনে পরিণত করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। 

হাউজ অব রিপ্রেজেন্টিটিভসে ৩৮৮-৫ ভোটে বিলটি অনুমোদন পায়। ছোটখাটো ব্যবসায় সহায়তা করার পাশাপাশি  হাসপাতাল কোভিড ১৯  টেস্টের আরও বেশি ব্যবস্থা করা জন্য এই অর্থ খরচ করা হবে।

নতুন পাস হওয়া বিল অনুযায়ী আইনপ্রণেতারা পে প্যাক প্রটেকশন প্রোগ্রামের আওতায় ছোট ব্যবসায়ীদের ৩১ হাজার কোটি ডলার দেবে। আর হাসপাতাল পাবে সাড়ে ৭ হাজার কোটি ডলার এবং টেস্টের জন্য ব্যয় হবে আড়াই হাজার কোটি ডলার।

এদিকে বৃহস্পতিবার ত্রাণ প্যাকেজটি পাস হওয়ার ফলে করোনা মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্রের ত্রাণ তহবিলে ৩ লাখ কোটি ডলারে পৌঁছেছে। এতে করে দেশটি রেকর্ড মাত্রায় বাজেট ঘাটতিতে পড়ছে। ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ডেমোক্র্যাটরা আরেকটি ত্রাণ বিল পাস করতে চাইছেন, যার মূল্য প্রায় ১ লাখ কোটি ডলার। কিন্তু ট্রাম্পের রিপাব্লিকান দলের সদস্যরা এটি পাসে আগ্রহী নন।