চব্বিশ ঘন্টা পেরোতে না পেরোতেই চোর পাকড়াও। গতকাল যশোররোডের আড়াই নম্বর গেটের কাছে মহিলা সোনা গয়না ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেফতার ৩ অভিযুক্ত। তাদের নাম যথাক্রমে-জাকির গাজী, রাজেশ সেন, শাকির হোসেন গাজী। এদেরকে মধ্যমগ্রাম থেকে গ্রেফতার করেছে বিমানবন্দর থানার পুলিশ।


প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার মিতা মজুমদার নামে এক মহিলা, ছেলেকে দেখতে হাসপাতাল যাচ্ছিলেন। সেই সময় দুটি বাইকে করে চার বাইক আরোহী তাদের রাস্তা আটকে ধরেন। মিতা দেবীকে বলেন লকডাউনে সোনার জিনিস পরে বাইরে বেরোনো যাবে না। এখানেই শেষ নয় নিজেদের পরিচয় দেয় পুলিশ আধিকারিক বলে। এরপর মিতা দেবীকে বলা হয় সোনার জিনিস খুলে ব্যাগের ভিতর রাখতে। এরপর মিতা দেবী ব্যাগের ভিতর সোনার জিনিস খুলে রেখে গাড়ি নিয়ে আবার ডাক্তার খানার উদ্যেশে রওনা দেয়। তারপর বাইক আরোহীরা ফের মিতা দেবীর পথ আটকায়।   'আপনার নাম ও কি কি জিনিস রাখলেন, তা খাতায় লিখতে হবে' বলে ফের দেখতে চান। তারপর সোনার জিনিস গুলো নিয়ে চম্পট দেয় বাইক আরোহীরা। 

অপরদিকে, ঘটনার কথা জানতে পেরে তদন্তে নামে বিমান বন্দর থানার পুলিশ। যশোর রোডের ওই এলাকায় সিসিটিভি লাগানো ছিল।   ওই  সিসিটিভি ফুটেজ দেখেই তদন্ত করতে সুবিধা হয়। শুক্রবার ধৃতদেরকে ব্যারাকপুর আদালতে তোলা হবে এবং নিজেদের হেফাজতে নেবে পুলিশ।