ভাইয়ের দোকানে বিক্রি বেশি হওয়া নিয়ে রেগে দাদা খুড়তোতো ভাই এর লিঙ্গ কেটে খুন করল শুক্রবার সকালে। পাশাপশি দুটো দোকান নিয়ে ব্যবসায়ীক বিবাদের জেরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ভাইকে খুনের অভিযোগ দাদার বিরুদ্ধে, আটক অভিযুক্ত। 

আরও পড়ুন, করোনার ভ্য়াকসিন নিতেই হৃদরোগে আক্রান্ত, প্রাণ হারালেন রাজ্য়ের ২ বাসিন্দা

 

 

 

শুক্রবার সকাল সাতটা নাগাদ ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনা বিষ্ণুপুর থানা এলাকার পাথরবেড়িয়া বোস পাড়া মোড়ের ঘটনা। ঘটনাস্থলে বিষ্ণুপুর থানার পুলিশ ও বিশাল কেন্দ্রীয় বাহিনী। দেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের পাঠানোর পাশাপাশি ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বিষ্ণুপুর থানার পুলিশ। দেড় বছর আগে একই জায়গায় কিনে দুই ভাই মিলে হার্ড ওয়ারসের ব্যবসা শুরু করেছিল। মাসখানেক আগে দুই ভাইয়ের মধ্যে ব্যবসা নিয়ে বিবাদ হয়। তারপর দুজনে দুজনের দোকান আলাদা করে নিয়ে চালাতে থাকে। তারপর থেকেই দাদা  তপন কাড়ারের দোকান ভালো চলছে না বলে দাবি। এ নিয়ে ভাই বেশ কয়েকদিন ধরেই মোহন কারার বিরুদ্ধেক্ষোভ সৃষ্টি হয় দাদার ।

আরও পড়ুন, আজ মমতার উপর 'হামলার' প্রতিবাদে দিল্লির পথে তৃণমূল, ওদিকে অভিযোগ খারিজ করে কড়া চিঠি কমিশনের  

 

 শুক্রবার সকালে যখন মোহন দোকান খুলতে আসে, তখন দাদা তপন ধারালো অস্ত্র দিয়ে প্রথমে গলায় তারপর পেটে আঘাত করে বলে অভিযোগ। পরে ভাইয়ের লিঙ্গ কেটে মৃত্যু সুনিশ্চিত করে। আশেপাশের দোকানের লোক-জন দেখে পালিয়ে গিয়ে পুলিশকে ফোন করে। তারপর ঘটনাস্থল থেকে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, বিবাদের জেরেই এই খুন। পুলিশ এসে রক্তাক্ত ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নিয়ে যায়।