করোনা পরিস্থিতি বদলে দিয়েছে দেশের চিত্র। নিজামুদ্দিন নিয়ে এবার 'সেকুলার' অপর্ণা সেনের মুখে শোনা গেল 'হিন্দুত্ববাদীদের সুর'। সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজামুদ্দিনে জামাতের জমায়েতকে ভয়াবহ ও অপরাধমূলক কাজ বলে আখ্য়া দিয়েছেন এই অভিনেত্রী। ইতিমধ্য়েই শোরগোল ফেলে দিয়েছে তাঁর এই মন্তব্য়। সুযোগ বুঝে তার এই মন্তব্য়ে ফুট কাটতে ছাড়ছে না বিজেপির লোকজন। 

তন্বী কাকিমার লকডাউন এফেক্ট, বাড়িকেই বানিয়ে ফেললেন ডিস্কো থেক, হয়ে গেলেন ভাইরাল..

দেশের সব রাজ্য়ের করোনা আক্রান্তের সংখ্য়ার সঙ্গে একা টক্কর দিচ্ছে শুধু দিল্লির নিজামুদ্দিনের ধর্মীয় সমাবেশ। পরিসংখ্য়ান বলছে, একা এখান থেকেই সারা দেশে ছড়িয়ে পড়েছে সংক্রমণ। গত কয়েকদিনে ভারতে যে নতুন করোনা আক্রান্তদের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে, তার  ৬০ শতাংশই তবলিগি জামাতের সদস্য। যা নিয়ে সরব হয়েছেন বিজেপির রাজ্য় সভাপতি দিলীপ ঘোষ। প্রকাশ্যেই নাম না করে তিনি  বলেছেন, একটি বিশেষ সম্প্রদায়ের জন্য় সারা দেশে দ্রুত এই হাল হচ্ছে। রাজ্য়েও তারা এসেছে। অথচ বিশেষ সম্প্রদায়ের বলে তাদের কিছু বলা যাবে না। 

কলকাতার আকাশে গোলাপি চাঁদ ! করোনার মাঝেই মহাজাগতিক দৃশ্য.

এই  পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে অপর্ণা সেনের মুখেও শোনা গেল একই কথা। টুইটারে অভিনেত্রী বলেন, জামাতদের ওই জমায়েত অত্যন্ত বিপজ্জনক আর অবশ্যই অপরাধমূলক কাজ। এই কাজের শাস্তি হওয়া উচিত। এই বলেই অবশ্য় থেমে থাকেননি অভিনেত্রী। তিনি বলেন, আমি নিরপেক্ষ নই। আমি উদারমনস্ক। কিন্তু দেশের আইন বিরোধী কোনও কাজ আমি বরদাস্ত করতে পারি না। সে হিন্দু, মুসলিম, ক্রিশ্চান, শিখ, নাস্তিক যেই করুক না কেন।

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ৩ শতাংশ, বাংলায় ২৫ শতাংশ বলছেন দিলীপ.

দেশের করোনা আক্রান্তের পরিসংখ্যান বলছে, কেবল দিল্লির নিজামুদ্দিনে তবলিগি জামাতের ৬৪৭ জন করোনা আক্রান্ত। যাদের মধ্য়ে নিজের রাজ্য়ে পৌঁছে ইতিমধ্য়েই১২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। অন্তত ১৪ রাজ্য়ে ছড়িয়ে পড়েছে করোনার সংক্রমণ। গত ১৩ মার্চ নিজামুদ্দিনে তবলিগি জামাতের সমাবেশ হয়। সেখানে ভারত ছাড়াও বাইরের দেশ থেকে অংশ নেন বহু মানুষ। সব মিলিয়ে প্রায় ৯ হাজার মানুষ যোগ দিয়েছিলেন ওই সমাবেশে। ইতিমধ্য়েই জামাতের ওই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীদের খোঁজ শুরু হয়েছে পশ্চিমবঙ্গে।