এবার করোনা রুখতে সরাসরি মুখ্য়মন্ত্রীর পদক্ষেপের বিরোধিতা করলেন বিজেপির রাজ্য় সভাপতি । দিলীপ ঘোষের অভিযোগ ,করোনায় মৃত্যু নিয়ে আগের মতো রাজনীতি করছেন মুখ্য়মন্ত্রী। সারা দেশে যেখানে করোনা সংক্রমণে মৃত্যুর হার ৩ শতাংশের নীচে। বাংলায় ইতিমধ্য়েই সেই হার পৌঁছে গিয়েছে ২৫ শতাংশের ওপরে। যা কখোনোই কাম্য নয়। সেসব দিকে না তাকিয়ে সস্তা প্রচার পাওয়ার জন্য় ছুটছেন মুখ্যমন্ত্রী। 

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ৩ শতাংশ, বাংলায় ২৫ শতাংশ বলছেন দিলীপ...

করোনায় ফিরে এল ডেঙ্গু মৃত্যুর কথা। অতীতে রাজ্য়ে ডেঙ্গু মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে রাজ্য় সরকারের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ উঠেছে। এবার সেই একই অভিযোগ উঠল করোনায় মৃতের সংখ্যা নিয়ে। মুখ্য়মন্ত্রীর বিরুদ্ধে করোনায় বিভ্রান্তি সৃষ্টির অভিযোগ করলেন বিজেপির  রাজ্য় সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এদিন দিলীপবাবু বলেন,করোনা রোগীর মৃত্যু হলেও মুখ্য়মন্ত্রী বলছেন, নিউমোনিয়া , হার্ট অ্যাটাকে মারা গিয়েছেন। যার ফলে এক ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হচ্ছে। 

মোদির সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে নেই মুখ্যমন্ত্রী, টুইটে খোঁচা রাজ্যপালের..

মৃত করোনায় মরেছে কিনা তা নিয়ে সংশয় তৈরি হচ্ছে পরিবারের মনে। ফলে ওই দেহ ধরেই কাঁদছেন পরিবারের লোকেরা। রোগীর যদি করোনায় মৃত্যু হয়ে থাকে, তাহলে এর ফল মারাত্মক হবে। যেখানে করোনায় দেহ দেওয়া যাবে বলছে সরকার, সেখানে মৃতদেহ ধরে কাঁদলে তার ফল ভুগতে হবে সবাইকে। মৃত্যুর পরও ধর্মীয় রীতি মেনে দেহ সংকার করতে দিচ্ছেন না মুখ্য়মন্ত্রী। প্রথমে বলা হয়েছিল ধাপার মাঠে সৎকার হবে করোনায় মৃতের। কিন্ত পরিবার গিয়ে দেখছে,সেখানে কোনও ব্যবস্থাই নেই। মৃতদেহের সঙ্গে এরকম অসম্মানজনক আচরণ করার অধিকার সরকারকে কেউ দেয়নি।

আল্লার ভরসায় থাকলেই আক্রান্ত হচ্ছেন,করোনার জন্য় 'মুসলিমদের দায়ী' করলেন দিলীপ..