Asianet News BanglaAsianet News Bangla

পুজোয় গভীর রাত অবধি খোলা থাকবে পানশালা-দোকান-রেস্তরাঁ, ঘোষণা নবান্নের

পুজোর সময় অতিরিক্ত সময় খোলা রাখা যাবে পানশালা এবং ছাড় দোকান-রেস্তরাঁকেও। উল্লেখ্য, কোভিড সংক্রমণ কমে আসতেই আগেই নৈশ কার্ফু শিথিল করেছিল রাজ্য সরকার।  
 

Bar Restaurants Can be opened in extended time during Durga Puja Says Nabanna RTB
Author
Kolkata, First Published Oct 10, 2021, 10:15 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

পুজোর সময় অতিরিক্ত সময় খোলা রাখা যাবে পানশালা (Bar) এবং ছাড় দোকান-রেস্তরাঁকেও (Restaurants)। উল্লেখ্য, কোভিড সংক্রমণ কমে আসতেই আগেই নৈশ কার্ফু শিথিল করেছিল রাজ্য সরকার (WB Govt)। এবার  পানশালা এবং ছাড় দোকান-রেস্তরাকে পুজোর সময় সাময়িক ছাড় দেওয়া হয়েছে। শনিবার বিজ্ঞপ্তি জারি করে এমনটাই জানিয়েছে নবান্ন (Nabanna)। 

আরও পড়ুন, পুজোর সকালে এক কাপ কফি ও ক্যালকাটা ৬৪ কাফে, মন ভালো করা এক ডেস্টিনেশন

পুজো কথা মাথায় রেখে ১০ অক্টোবার থেকে ২০ অক্টোবার অবধি আগেই শিথিল করা হয়েছে কোভিধ বিধি। উৎসবের রাতে থাকবে না নাইট কার্ফু। মূলত উৎসবের সময় সমস্যা না হয়, সে কারনে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে  রাজ্য সরকার।  তবে ২১ অক্টোবার থেকে ফের নাইট কার্ফু শুরু হবে। কোভিড পরিস্থিতিতে লকডাউন উঠলেও প্রথমে রাতের দিকে পানশালা-দোকান-রেস্তরাঁয় খোলা বারণ ছিল। বাধা ছিল জিম, সুইমিং, সিনেমা হলেও। তারপর বিধি শিথিল হতেই ৮ থেকে বাড়িয়ে রাত ৯ টা তারপর সেটা রাত ১১ টা অবধি করে দেওয়া হয়। তবে যেহেতু কোভিড সংক্রমণ আগের থেকে কমেছে, তাই নৈশ কার্ফুও শিথিল করা হয়েছে।

আরও পড়ুন, Durga Puja 2021: শিল্প থেকে আদিবাসীদের সংস্কৃতি, নানান থিমের ভাবনায় সেজে উঠেছে বাঁকুড়া

উল্লেখ্য, দীর্ঘ দুই কোভিড বর্ষে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই রোজগার হারিয়ে ভয়াবহ পরিস্থিতি সম্মুখীন হয়েছে বিক্রেতারা। অনেকেই আত্মঘাতী হয়েছে। তবে পুজোর সময়টায় সেই যন্ত্রনাটা যাতে লাঘব হয় এবং দর্শনার্থীদের সুবিধার্থেও এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত,  শহর কলকাতায় বড় বড় যে সমস্ত পূজামণ্ডপ রয়েছে সেই পুজো মণ্ডপ একবার করে পরিদর্শন করে নিচ্ছেন কলকাতা পুলিশের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা। অধিকাংশ পুজোরই উদ্বোধন হয়ে গিয়েছে। , দুর্গাপুজোতে এবারও মণ্ডপে 'নো-এন্ট্রি'  দর্শকদের। অক্টোবরে পা দিতেই চলতি বছরের দুর্গাপুজো নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত জানিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট।   হাইকোর্ট যে সমস্ত নির্দেশ দিয়েছে সে সমস্ত নির্দেশ পুজো কমিটি ও সাধারণ মানুষকে মানতে হবে এবং প্রতিটি পুজো কমিটির ভলেন্টিয়ারদের এবং আয়োজকদের ভ্যাকসিন নিতে হবে বলে  বার্তা দিয়েছেন কলকাতা পুলিশ কমিশনার সৌমেন মিত্রও।

আরও দেখুন, বিরিয়ানি থেকে তন্দুরি, রইল কলকাতার সেরা খাবারের ঠিকানার হদিশ  

আরও দেখুন, কলকাতার কাছেই সেরা ৫ ঘুরতে যাওয়ার জায়গা, থাকল ছবি সহ ঠিকানা  

আরও দেখুন, মাছ ধরতে ভালবাসেন, বেরিয়ে পড়ুন কলকাতার কাছেই এই ঠিকানায়  

আরও পড়ুন, ভাইরাসের ভয় নেই তেমন এখানে, ঘুরে আসুন ভুটানে  

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios