অপরাধ বিজেপি-কে সমর্থন। আর সেই কারণেই খাস কলকাতায় তিন বিজেপি কর্মীকে পুকুরের জলে ডুবিয়ে মারধর করার অভিযোগ উঠল তৃণমূল সমর্থকদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে কলকাতা পুরসভার ১২১ নম্বর ওয়ার্ডে। বেহালা থানাতেও অভিযোগ দায়ের করেছেন আক্রান্ত বিজেপি সমর্থকরা। 

আক্রান্ত বিজেপি সমর্থকদের অভিযোগ, এ দিন সন্ধ্যায় তাঁরা বেহালা শিশির বাগান এলাকায় বসে নিজেদের মধ্যেই গল্প করছিলেন। তখনই আচমকা সেখানে জনা কুড়ি তৃণমূল সমর্থক চড়াও হয়। আকাশনীল নামে এক তৃণমূল সমর্থকের নেতৃত্বেই হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ। কেন বিজেপি-র হয়ে মিছিলে গিয়েছিল, এই যুক্তিতে ভোলা মাহাতো, সুদীপ মজুমদার এবং শৌভিক মজুমদার নামে তিন যুবককে বেধড়ক মারধর শুরু করে তৃণমূল সমর্থকরা। অভিযোগ, কাছেই একটি পুকুরের জলে বার বার চুবিয়ে তিন বিজেপি  সমর্থককে মারধর করে। 

পরে ওই তিন বিজেপি সমর্থককে বিদ্যাসাগর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে একজনকে প্রাথমিক চিকিৎসার পরে ছেড়ে দেওয়া হলেও বাকি দু' জনকে ভর্তি রেখে চিকিৎসা চলছে। ঘটনার পরেই বিজেপি-র তরফে বেহালা থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। এই ঘটনায় একাধিকবার স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সিলর মানিক চট্টোপাধ্যায়কে ফোন করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি।

অন্যদিকে এ দিন বেহালার সরশুনা কলেজেও এক এবিভিপি সমর্থককে দীর্ঘক্ষণ আটকে রেখে মারধর করার অভিযোগ ওঠে টিএমসিপি-র বিরুদ্ধে। পরে বিকেলের দিকে বিজেপি সমর্থকরা কলেজের ইউনিয়ন রুম থেকে ওই ছাত্রকে উদ্ধার করে। ঘটনার প্রতিবাদে বিজেপি সমর্থকরা সরশুনা থানা ঘেরাও করে। যদিও সব অভিযোগই অস্বীকার করেছেন কলেজে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের নেতারা।