রুজি পাঁজা:  করোনাজনিত কারণে আপত্তি, রাজ্য সরকারের যুক্তি ধোপে টিকল না আদালতে। স্বাস্থ্য়বিধি মেনে শেষপর্যন্ত বড়বাজারে বিজেপি রক্তদান শিবির করার অনুমতি দিল হাইকোর্ট। তবে বৃষ্টির কথা মাথায় রেখে মামলাকারীকে অস্থায়ী শিবির ব্য়বহার করার নির্দেশ দিয়েছেন বিচার রাজশেখর মান্থার।

আরও পড়ুন: 'নয়া কৃষি বিলে কাটমানি পাবে না তৃণমূল', মমতাকে 'কাটমানি' কটাক্ষ সম্বিত পাত্রের

করোনা আতঙ্কে যখন থরহরিকম্প অবস্থা সকলের, তখন রাজ্যে সরকারি হাসপাতালগুলিকে কিন্তু রক্তের সংকটও চরমে। রক্তের জোগান দেবে কে! বড়বাজারের ১৩৭ নম্বর বি আর বি বসু রোডে গাড়ি পার্কিং-এর জায়গা রক্তদান শিবির আয়োজনের উদ্যোগ নেয় বিজেপি। নিয়মাফিক পুলিশের কাছে অনুমতি চেয়ে আবেদন করা হয় ১৮ সেপ্টেম্বর। কিন্তু করোনাজনিত কারণে অনুমতি মেলেনি।  এরপর পদ্মশিবিরের তরফে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করেন ভোলা প্রসাদ সোনকার। তাঁর আর্জি ছিল, সরকারি হাসপাতালে রক্তের সংকট মেটানোর জন্য এই শিবিরের আয়োজন করা হচ্ছে। যাঁরা রক্ত দিতে আসবেন, তাঁদের জন্য একটি অস্থায়ী প্যান্ডেল বাধাও একান্ত প্রয়োজন। 

আরও পড়ুন: নাইজেরিয়ান গ্যাং-র ফাঁদে বাগুইআটির বাসিন্দা, লোভে পড়ে খোয়ালেন ৮২ লক্ষ টাকা

শুক্রবার হাইকোর্টের বিচারপতি রাজশেখর মান্থারের এজলাসে মামলাটি ওঠে। শুনানিতে সরকারি আইনজীবী অমিতেষ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, করোনা অতিমারির কারণে জমায়েতে নিষেধাজ্ঞা জারি পরপর দুটি বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে সরকার। সেই বিজ্ঞপ্তি মেনেই রক্তদান শিবির আয়োজনের অনুমতি দেয়নি পুলিশ। শেষপর্যন্ত অবশ্য মামলাকারীর পক্ষেই রায় দেয় আদালত।  তবে পুলিশের যদি কোনও বক্তব্য থাকে, তাহলে ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্য়ে তা জানানোর নির্দেশও দেওয়া হয়েছে।