বুধবার নবান্ন বিভিন্ন সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নবান্ন সভাঘরে এই বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৈঠকের শুরুতেই, ইটাহারে বাস স্ট্যান্ড এর উদ্বোধন করেন তিনি। সরকারি খরচে এই বাস স্ট্যান্ড নির্মাণ করা হয়েছে। ইটাহার থেকে কলকাতা এসি বাসের সুবিধা পাবেন এখানকার মানুষ। একই সঙ্গে দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার বুকিং কাউন্টার এর উদ্বোধন করা হলো।

 

আরও পড়ুন, কলকাতায় এলেন অমিত শাহ, বেরোনোর ১৫০ মিটারের মধ্যেই আগুন

 

জমির পাট্টা-কাস্ট সার্টিফিকেট নিয়ে কী বললেন মমতা

বুধবার এরই সঙ্গে  আদিবাসী মানুষদের জমির পাট্টা তুলে দেওয়া হয়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, এক লাখ ২৫ হাজার মানুষকে এই সুবিধা দেওয়া হবে। এদিন কিছু মানুষের হাতে তুলে দেওয়া হয়। ধাপে ধাপে বাকিদের হাতে তুলে দেওয়া হবে এই সুবিধা। এছাড়া বেশ কয়েকজন ছাত্র ছাত্রীদের পড়াশোনার জন্য বিশেষ আর্থিক প্যাকেজ তুলে দেওয়া হয়। এই পরিপ্রেক্ষিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, 'আমরা আগে এই বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম এদিন তা রাখতে পারলাম।'জমির পাট্টা দেওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এই জমির উপর অধিকার জন্মালো তাদের। তাদের অনেক সমস্যার সমাধান হল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও জানান, আগামী দিনে আদিবাসীদের জমি কেউ কেড়ে নিতে পারবে না। আমরা কাস্ট সার্টিফিকেট দেওয়ার ক্ষেত্রে নিয়মের অনেক সরলীকরণ করেছি। এতে অনেক সহজে অনেকই কাস্ট সার্টিফিকেট পেতে পারবে। 

 বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে দিতে ভাবনা

একই সঙ্গে ডোকরা শিল্পীদের উন্নতির কথা মাথায় রেখে রাজ্যের ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প দফতরের সচিবকে বিশেষ নির্দেশ দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার নবান্ন থেকে এই নির্দেশ দেন তিনি। এই ধরণের শিল্পীরা যাতে আগামী দিনে তাদের শিল্পকে বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে দিতে পারে তারজন্য এই ভাবনা। একই সঙ্গে এই শিল্পের সঙ্গে যারা যুক্ত তাদের স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত করার ঘোষনা করা হয়। 

 

আরও পড়ুন, বাংলার ২ লক্ষ ছেলে-মেয়ের কর্মসংস্থান-সহজে ব্যাঙ্ক ঋণ, একুশের আগে বড় ঘোষণা মমতার

১০ কোটি টাকার অনুদান ঘোষণা

মতুয়া সম্প্রদায়ের মানুষদের পাশে আরও বেশি করে দাঁড়ানোর বার্তা দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন মতুয়াদের জন্য আমি অনেক কিছু কাজ করেছি। সেখানে কলেজ তৈরি করেছি। এখন যারা উড়ে এসে বসেছে তারা সেই সব জানে না। মতুয়া সম্প্রদায়ের মানুষদের জন্য আমরা মতুয়া উন্নয়ন পর্ষদ তৈরি করলাম। সারা রাজ্য থেকে প্রতিনিধিদের নিয়ে এই কমিটি তৈরি হবে। এর জন্য ১০ কোটি টাকার অনুদান ঘোষণা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এছাড়া বাগদি, বাউরি সম্প্রদায়ের মানুষের জন্য কালচারাল বোর্ড গঠন করা হবে বলে জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামী দিনে যাতে এই সম্প্রদায়ের মানুষ তাদের ইতিহাসকে বাঁচিয়ে রাখতে পারেন সেই কারণে এই ঘোষনা। 

'যে ধর্ম মানবিকতার কথা বলবে সেটাই তো আসল ধর্ম', মমতা

অন্যদিকে, এদিনের বৈঠক থেকেই ছৌ শিল্পীদের জন্য কমিউনিটি সেন্টার তৈরি করে দেওয়ার কথা জানালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একই সঙ্গে তিনি বলেন, হাতের কাজ করেন এমন শিল্পীদের কথা মাথায় রেখে বিশেষ মেলা করার ভাবনা নেওয়া হচ্ছে। সঙ্গে তিনি বলেন, 'যে ধর্ম মানবিকতার কথা বলবে সেটাই তো আসল ধর্ম। আমি চাই সব সম্প্রদায়ের থেকে আগামী দিনের নেতা উঠে আসুক। 'পাশাপশি আগামী দিনের কর্মসংস্থান এর কথা মাথায় রেখে তিনি বলেন, 'দুই লাখ যুবককে বাইক দেওয়ার ভাবনা নিয়েছে রাজ্য সরকার। সেই বাইকে করে তাদের পণ্য বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি করতে পারবেন ওই যুবকেরা।' 

 

আরও পড়ুন, বিদায় নিলেন পুরুলিয়ার 'দাবাং' জেলা শাসক রাহুল মজুমদার, আচমকা বদলি ঘিরে জোর জল্পনা

 

'মা মাটি মানুষের সরকার আপনাদের পাশে সব সময় আছে'

একই সঙ্গে অন্যান্য সম্প্রদায়ের মানুষের পাশাপাশি কীর্তন শিল্পীদের জন্য কীর্তন একাডেমী তৈরি করার কথা এদিনের বৈঠকে জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সাতদিনের মধ্যে এদিনের বৈঠকে আলোচনার বিষয়ে রিপোর্ট জমা দেওয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সব শেষে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বার্তা, 'মা মাটি মানুষের সরকার আপনাদের পাশে সব সময় আছে, আমাদের ভুল বুঝবেন না।'