''নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের মূল্য বৃদ্ধির কারণে সাধারণ মানুষের সমস্যা হচ্ছে। তা নীরব দর্শক হিসেবে দেখতে পারেনা রাজ্য সরকার। তাই অবিলম্বে রাজ্য সরকারের হাতে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের মূল্য বৃদ্ধি রোধে ব্যবস্থা নেওয়ার ক্ষমতা দেওয়া হোক''। এই দাবি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি পাঠালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার এই চিঠি পাঠিয়েছেন তিনি। এদিনের পাঠানো চিঠিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র বিশেষ করে আলু এবং পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধি প্রসঙ্গ তুলে ধরেছেন, একইসঙ্গে কৃষক বিরোধী আইনের প্রসঙ্গ তুলে ধরে তিনি বলেছেন এই আইনের ফলে রাজ্য সরকার বঞ্চিত হচ্ছে। এই আইনের মাধ্যমে রাজ্য সরকারের কাছ থেকে তাদের অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে। আলু পেঁয়াজের মূল্য রোধে রাজ্য কোন ব্যবস্থা নিতে পারছে না। 

আরও পড়ুন-বুধবার থেকে চাকা গড়বে লোকাল ট্রেনের, হাওড়ায় খুলল টিকিট কাউন্টার, চলছে চূড়ান্ত প্রস্তুতি

প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগেই নবান্ন থেকে সাংবাদিক সম্মেলন করে এই বিষয়ে চিন্তা প্রকাশ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেছিলেন, ''আমাদের ইচ্ছা থাকলেও কেন্দ্রীয় সরকারের কৃষি বিরোধী এই আইনের ফলে আলু এবং পেঁয়াজের মূল্য রোধে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে''। সেদিনই তিনি জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি পাঠাবেন। যদিও সেই দিনই রাজ্য এবং কলকাতা পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছিলেন বিভিন্ন বাজারে অভিযান চালাতে যাতে আলু পেঁয়াজের মতো নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রীর মূল্য নিয়ন্ত্রণ এর মধ্যে থাকে। 

প্রসঙ্গত, শহর কলকাতায় এদিনও একাধিক বাজারে অভিযান চালিয়েছে কলকাতা পুলিশের এনফর্সমেন্ট ব্রাঞ্চ। কোন ব্যবসায়ী বেআইনিভাবে আজ কিংবা আলু মজুদ করে দেখেছেন কিনা তাও খতিয়ে দেখেছে এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের আধিকারিকরা। গত কয়েকদিন ধরে এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের এই অভিযান চললেও এখনো নিয়ন্ত্রণে আসেনি আলু পেঁয়াজের দাম।