করোনা রুখতে রীতিমত সতর্ক রাজ্য় তথা কলকাতা। যার শহর কলকাতার বাজারে মাস্কের চাহিদাও প্রচুর পরিমানে বেড়েছে। আর এই পরিস্থিতিতেই নকল মাস্ক আসল বলে চালিয়ে  প্রায় ৮গুণ বেশি দামে বিক্রি করছে শহরের কিছু ওষুধ বিক্রেতারা। এমনকি সেই তালিকায় নিষিদ্ধ চিনা মাস্কও রয়েছে। সম্প্রতি উত্তর কলকাতা এবং মধ্য় কলকাতায় ওষুধের দোকানে ইবি অর্থাৎ এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের অভিযান চালাতেই এই তথ্য় বেরিয়ে এল। কার্যত যা সম্পূর্ণ বেআইনি।

আরও পড়ুন, রাজ্যে ফের ঢুকছে পশ্চিমী ঝঞ্ঝা, তৈরি হচ্ছে বিপরীত ঘূর্ণাবর্ত

সূত্রের খবর, ইবি অর্থাৎ এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের অভিযান চালাতেই উত্তর কলকাতার কলেজ স্ট্রিট এলাকার একটি ওষুধের দোকানে বিরুদ্ধে ভয়ঙ্কর অভিযোগ উঠেছে।  উন্নতমানের এন৯৫ মাস্ক-এর নাম নিয়ে অতি-নিম্নমানের দ্রব্য় দিয়ে বানানো নকল মাস্ক বিক্রি করছে তাঁরা। তার উপর যার দাম আসলের প্রায় ৮গুন বেশি।  এক প্রবীন ইবি আধিকারিক জানিয়েছেন, ওই ওষুধ বিক্রেতাদের রষিদ দেখাতে বললে তাঁরা দেখাতে পারেননি। ইবি-র দাবি, ৮০ টাকা এবং ১৫০টাকায় বিক্রি হচ্ছে ওই নকল মাস্ক।

আরও পড়ুন, কলকাতার বেশিরভাগ দ্রষ্টব্য স্থান বন্ধ হলেও খোলা চিড়িয়াখানা, মাস্ক পরার নির্দেশ কর্মীদের

অপরদিকে, আমহারস্ট্রীটে এক ওষুধের দোকানে রেড চালিয়ে উঠে আসল আরও ভয়ঙ্কর তথ্য়। সেই দোকানি কোনও রসিধ ছাড়াই নিষিধ্য় চিনা মাস্ক বিক্রি করছেন। তাদের বিরুদ্ধে জরিমানা করা হয়েছে। এবং ইবি আধিকারিকদের সামনেই ওই নিষিদ্ধ চিনা মাস্ক নষ্ট করে ফেলতে বলা হয়েছে। অপরদিকে স্য়ানিটাইজার বিক্রি চলছে চড়া দামে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য়, কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য় মন্ত্রক থেকে ইতিমধ্য়েই রাজ্য় এবং সংস্থাকে আগাম করোনা ভাইরাস নিয়ে আগাম সতর্কতা নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। স্টেডিয়াম, থিয়েটার, সিনেমা হল সহ সব জায়গাতেই কোনওরকম জমায়েতের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।  এই মুহূর্তে বিশ্বের প্রায় ১৪১ টি দেশে কামড় বসিয়েছে প্রাণঘাতী ভাইরাস করোনা। এক লক্ষ পচিশহাজারেরও বেশি মানুষ এই ভাইরাসে আক্রান্ত। চিনে মৃতের সংখ্যা সাড়েতিনহাজার ছাড়িয়েছে। ভারতেও আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ বেড়ে একশো ছাড়িয়েছে। তাই করোনা মোকাবালিয় কোনও রকম ঝুঁকি নিতে রাজি নয় রাজ্য় সরকার।

আরও পড়ুন, বাধা দিচ্ছে করোনা আতঙ্ক, পুরভোট পিছোনোর দাবি তুলবে তৃণমূল